সুপ্রিম কোর্টেও কিছুটা হলেও স্বস্তি পেলেন বিদ্রোহী কংগ্রেস নেতা  শচীন পাইল ও তাঁর ১৮ অনুগামী। বুধবারই সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হয়েছিলেন রাজস্থানের স্পিকার সিপি যোশী। রাজস্থান হাইকোর্টের রায়দান স্থগিত রাখার আবেদন জানিয়েছিলেন শীর্ষ আদালতে। সেই মামলার শুনানিতেই বৃহস্পতিবার শীর্ষ আদালতের বিচারপতি অরুণ কুমার মিশ্র জানিয়েছেন গণতন্ত্রে বিরুদ্ধে কণ্ঠস্বর রোধ করা যায় না। পুরো বিষয়টি বেঞ্চ পর্যবেক্ষণ করছে। পাশাপাশি আদালতের পক্ষ থেকে আরও বলা হয়েছে শচীন পাইলট ও তাঁর অনুগামী ১৮ বিধায়ককে অযোগ্য ঘোষণা করার প্রক্রিয়াটি অনুমোদিত ছিল কিনা তাও অনুসন্ধান করে দেখা হচ্ছে। সুপ্রিম কোর্ট স্পষ্ট করে বলেছে শচীন পাইলট ও তাঁর অনুগামীদের অযোগ্যতার নোটিশের বিরুদ্ধে আবেদনের বিষয়ে নির্দেশ দিতে পারে হাইকোর্ট। একই সঙ্গে স্পিকারের দায়ের করার আবেদনের শুনানিও পিছিয়ে দিয়েছে শীর্ষ আদালত। 

এদিন স্পিকার সিপি যোশীর হয়ে আদালতে সওয়াল করেন কংগ্রেস নেতা কপিল সিব্বল। তিনি বলেন, বিধায়করা হরিয়ানা গিয়েছিলেন। একটি হোটেলেও দীর্ঘ দিন ছিলেন। সেখান থেকেই বিদ্রোহী বিধায়করা জানিয়েছিলেন তাঁরা বিধানসভায় সংখ্যাগরিষ্ঠতা প্রমাণ চান। বিদ্রোহী বিধায়কদের এই পদক্ষেপ অযোগ্যতা প্রক্রিয়া অনুমোদিত কি না সে বিষয় আদালত নয় স্পিকারই শেষ কথা বললেন  বলেও সওয়াল করেন সিব্বল। 

রাজস্থানের রাজনৈতিক সংকট এবার সুপ্রিম কোর্টে, 'সাংবিধানিক' সংকট' বলেই দাবি স্পিকারের ...

এদিন শুনানি চলাকালীনই শীর্ষ আদালত প্রশ্ন করে সভাগুলিতে অনুপস্থিত থাকার কারণেই কি বিধায়কদের অযোগ্য ঘোষণা করা যায়? দলের বিপক্ষে অবস্থান হিসেবেই কি তা গন্য হয়? তবে সিব্বল বলেন, সভায় অংশ নেওয়ার জন্যই স্পিকার হুইপ জারি করেছিলেন। 

শচীন পাইলট বনাম রাজস্থানের স্পিকারের মামলায় শুক্রবারই রায় ঘোষণা করবে রাজস্থান হাইকোর্ট। এদিন সেই প্রসঙ্গ তুলে শীর্ষ আদালত প্রশ্ন করেন আর মাত্র এক দিন কেন অপেক্ষা করা যাচ্ছে না। 

রোমাঞ্চে ভরা সোনু পঞ্জাবনের ব্যক্তিগত জীবন, দুই স্বামীর মৃত্যু পুলিশের এনকাউন্টারে

মানুষ কেনা বেচার অপরাধে সোনু পঞ্জাবনের ২৪ বছরের জেল, 'মহিলা বলার সীমা অতিক্রম করেছে' বলল আদালত ...

অন্যদিকে পাইলট শিবিরের দাবি তাঁরা দল ছাড়তে কখনই রাজি নয়। কংগ্রেসেই থাকতে চান। বিজেপির সঙ্গে কোনও যোগাযোগ করেনি তারা। দলের নেতৃত্ব পরিবর্তনেরও দাবি জানিয়েছে পাইলট শিবির।