টুইট করে সাহায্য চেয়ে অনেকেই প্রাক্তন বিদেশমন্ত্রী সুষমা স্বরাজের থেকে সাহায্য় পেয়েছিলেন। আইএস দ্বারা অপহৃত কেরলের ক্যাথলিক ধর্মযাজকের ভিডিও দেখেও পাশে  দাঁড়িয়েছিলেন তিনি। ২০১৬-য় ইয়েমেনে মাদার টেরেজার মিশনারিজ অফ চ্যারিটিতে হামলা চালায় আইএস। তখনই সেই ধর্মযাজককে অপহরণ করা হয়। 

সেই সময়ে একটি ভিডিও ভাইরাল হয় সোশ্যাল মিডিয়ায়। সেই ভিডিওয় ওই ধর্মযাজক পোপ ফ্রান্সিস ও ভারত সরকারের কাছে আবেদন করে বলেন, আমি যদি ইউরোপীয় ধর্মযাজক হতাম, তা হলে আমার বিষয়টি আরও গুরুত্ব দিয়ে দেখা হতো। যেহেতু আমি  ভারতের তাই আমার অপহরণের বিশেষ কোনও গুরুত্ব নেই। আমি অবসাদে ভুগছি আমার শরীরও খারাপ। আমাকে বাঁচান। 

সেই ভিডিও দেখেই বিদেশমন্ত্রী টুইট করেছিলেন, আমি ফাদার টমের ভিডিওটি দেখেছি। উনি তিনি একজন ভারতীয় নাগরিক। আর প্রত্যেক ভারতীয়ের জীবনই আমাদের কাছে মূল্যবান। আমরা এর আগেও ফাদার অ্যালেক্স প্রেম কুমার ও জুডিথ ডিসুজাকে আফগানিস্তান থেকে উদ্ধার করে এনেছি। 

 

 

সুষমা জানিয়েছিলেন, আমরা চেষ্টার কোনও ত্রুটি রাখছি না। ফাদার টমকে অপহৃতদের ডেরা থেকে ছাড়িয়ে নিয়ে আসার ব্যাপারে আমরা চেষ্টা চালিয়ে যাব। 

এর পরে ২০১৭-র ১২ সেপ্টেম্বর তৎকালীন বিদেশমন্ত্রী জানান, ফাদার টমকে উদ্ধার করা গিয়েছে। টম ফাদারের দেশে ফিরে আসা ভারতীয় বিদেশ মন্ত্রকের কাছে একটি বড় জয় ছিল।