ক্লাসে দেরি হয়েছে বলে দীর্ঘক্ষণ ক্লাসরুমের বাইরে দাঁড়িয়ে থাকার নজির রয়েছে। কিন্তু জম্মু ও কাশ্মীরের এই শিক্ষক যা করলেন, তাতে চোখ কপালে উঠেছে নেটিজেনদের। 

ঘটনাটি ঘটেছে জম্মু ও কাশ্মীরের ডোডা জেলায়। সেখানকারই একটি ছাত্রাবাসে ছাত্রদের ওপর শিক্ষকের নির্মম আচরণের কথা প্রকাশ্য আসতেই শিক্ষকের কঠোর শাস্তি দাবি করছেন বিভিন্ন মহল। জানা গিয়েছে, ওই আবাসিকের যে ছাত্রদের ওপর নির্যাতন করা হয়েছে, তাঁদের প্রত্যেকেই ষষ্ঠ থেকে অষ্টম শ্রেণীর ছাত্র বলে জানা গিয়েছে। সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হওয়া ওই ভিডিও থেকে জানা গিয়েছে, ক্লাসে মাত্র ১০ মিনিট দেরিেত আসার কারণে ছাত্রদের নির্মমভাবে বেত মারে ওই সরকারি স্কুলের শিক্ষক। 

অভিযুক্ত ওই শিক্ষকের নাম মহম্মদ ইয়াসিন। ভাইরাল হওয়া ওই ভিডিওতে দেখা গিয়েছে, প্রায় ২০-২৫ জন আবাসিক মাথা নিচু করে নীল ডাউন হয়ে বসে রয়েছে এবং একের পর এক ছাত্রকে তিনি নির্বিচারে বেত মেরে চলেছেন। ভিডিওটি যে গোপনে করা হয়েছে সেই বিষয়টিও স্পষ্ট। 

 

সামান্য ১০ মিনিট দেরিতে ক্লাসে আসার জন্য এতটা নির্মম শাস্তি কীকরে একজন শিক্ষক দিতে পারে সেই নিয়েই উঠছে প্রশ্ন। নির্মম এই ভিডিওর ছবি ভাইরাল হওয়ার পরই নড়েচড়ে বসেছে প্রশাসন। ইতিমধ্যেই শুরু হয়ে গিয়েছে গোটা ঘটনার তদন্ত। এবং অভিযুক্ত ওই শিক্ষককে বরখাস্ত করা হয়েছে।