নাগরিকত্ব সংশোধন আইন বা সিএএ ২০১৯ মানতে নারাজজ হলে পাঠানো হবে পাকিস্তানে। সরকারি স্কুলের ক্লাসরুমে এমনই হুমকি দিয়েছিলেন বলে অভিযোগ করেছিল কেরলের  কোডুঙ্গালুরের এক সরকারি স্কুলের ছাত্রীরা। তার জেরে ওই শিক্ষককে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা হয়েছে বলে জানা গিয়েছে।

কেরলের শিক্ষা দপ্তরের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, বৃহস্পতিবার (১৬ জানুয়ারি) ওই স্কুলের হিন্দি ভাষার শিক্ষক কালেশনের বিরুদ্ধে ত্রিশুরের শিক্ষা বিভাগের ডেপুটি ডিরেক্টর-এর কাছে এক শিক্ষার্থীর বাবা সোশ্যাল মিডিয়ায় অভিযোগ জানান। তারপরই এই বিষয়ে অনুসন্ধান করে শুক্রবার শিক্ষকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। তাঁর বিরুদ্ধে তদন্ত শেষ না হওয়া পর্যন্ত তিনি সাসপেন্ড থাকবেন।

শিক্ষা বিভাগের সূত্রে জানা গিয়েছে ঘটনাটি ঘটে কোডুঙ্গালুর বালিকা উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে। অভিযুক্ত শিক্ষক কালেশন ক্লাস নেওয়ার সময় ছাত্রীদের সিএএ নিয়ে তথ্য দেন। শুধু তাই নয়, এরপর এই নতুন আইন মানতে রাজি না হলে ছাত্রীদের পাকিস্তানে চলে যাওয়া উচিত , বলে হুমকিও দেন বলে অভিয়োগ করেছে ছাত্রীরা। প্রথমে তাঁরা প্রধান শিক্ষকের কাছে অভিযোগ করেছিলেন।

তবে এর আগে ওই শিক্ষকের বিরুদ্ধে, অশ্লীল ভাষায় কথা বলার অভিযোগও উঠেছিল বলে জানা গিয়েছে। তার ভিত্তিতে অনুসন্ধানের পর তাঁকে সাসপেন্ডও করা হয়েছিল। পরে আবার কাজে যোগ দেন।