বিভিন্ন সময়ই পুলিশের বিরুদ্ধে নিষ্ক্রিয়তার অভিযোগ ওঠে। অপরাধীদের সন্ধান জেনেও তাদের গ্রেফতার করা হচ্ছে না এমন গুরুতর অভিযোগও কম নেই। কিন্তু এই বদনাম অন্তত তেলেঙ্গানার হুজুরাবাদ টাউন থানার পুলিশের বিরুদ্ধে করা যাবে না। দারুণ তৎপড়তা দেখিয়ে সম্প্রতি তারা 'গ্রেফতার' করেছে দুটি ছাগলকে।

কিন্তু, কী তাদের অপরাধ? 'সেভ দ্য ট্রি' নামে একটি এনজিও ছাগলদুটির নামে হুজুরাবাদ টাউন থানায় প্রায় ২৫০টি চারাগাছ খেয়ে ফেলার অভিযোগ দায়ের করে। তার ভিত্তিতেই 'গ্রেফতার' করা হয় ছাগলদুটিকে।

'সেভ দ্য ট্রি' এনজিও-র পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে পরিবেশ রক্ষায় তাঁরা সম্প্রতি গাছ লাগানোর একটি প্রকল্প গ্রহণ করেছে। সেই প্রকল্পের আওতায় হুজুরাবাদ টাউনের বিভিন্ন জায়গায় গত কয়েকদিনে প্রায় ৯৫০টি চারাগাছ লাগিয়েছেন এনজিও-এর সদস্যরা। কিন্তু লাগানোর পর থেকেই সেই চারাগাছগুলি বিভিন্ন পশু খেয়ে ফেলছিল।

এই ক্ষতি আটকাতে গত মঙ্গলবার এনজিও-এর কয়েকজন সদস্য কড়া নজর রেখেছিলেন চারাগাছগুলির উপর। আর তাতেই অপরাধী দুই ছাগল ধরা পড়ে যায়। ছাগলদুটিকে ধরে তারা পুলিশের হাতে তুলে দেয়।

সমস্যা হল এই দুই 'অপরাধী' জানেই না কেন তাঁদের 'গ্রেফতার' করা হয়েছে। কী তাদের অপরাধ। তারা যে 'গ্রেফতার' হয়েছে সেই বোধটাও তাদের নেই। হুদজুরাবাদ থানা চত্ত্বরেই তাদের একটি দড়ি দিয়ে বেধে রাখা হয়েছে। মনের সুখে তারা সেখানকার কচি ঘাস চিবোচ্ছে।