টিকটকে ভিডিও বানান না এমন মানুষ খুঁজে পাওয়া খুবই কঠিন। টিকটক-এ নিত্যনতুন ভিডিও বানানো যেন একটা আসক্তিতে পরিণত হয়েছে। রাস্তা-ঘাট, কলেজ, পার্ক অফিস সব জায়গাতেই এখন সকলে টিকটক করতে ব্যস্ত। এর আগে যদিও ভারতে একবার টিকটক নিষিদ্ধ করার চেষ্টা করা হয়েছিল বটে, যদিও সে চেষ্টা ধোপে টেকেনি, এবং দিব্যি বহাল রয়েছে টিকটক।

তবে এবার অফিসের মধ্যে টিকটকে ভিডিও বানিয়ে বিপদের মুখে পড়ললেন তেলেঙ্গানার ১১ জন সরকারি কর্মী। অফিসের মধ্যে টিকটক ভিডিও বানিয়ে তাঁরা শেয়ার করেছিলেন সোশ্যল মিডিয়ায়। তারপর তা ভাইরাল হতেই প্রশ্নের মুখে পড়েন ওই সরকারি কর্মচারীরা। তেলেঙ্গানার খাম্মাম মিউনিসিপল কর্পোরেশনের ১১ জন কর্মীর বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নেয় তেলেঙ্গানা সরকার। তাঁদের বিরুদ্ধে অভিযোগ অফিসের মধ্যে তাঁদের অফিস কাজের সময়ের মধ্যে ব্যাকগ্রাউন্ডে ভিডিও চালিয়ে নানা অঙ্গভঙ্গি করে ভিডিও বানিয়েছেন তাঁরা। আর এই ঘটনার পরই অভিযুক্ত ওই ১১ জন কর্মচারীকে অন্য দফতরে বদলি করে দেওয়ার এবং তাঁদের বেতনও কমিয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয় তেলেঙ্গানা সরকার।

ঘর ছাড়লেই ভিটে হারানোর ভয়, বন্যার মধ্যেও এনআরসি আতঙ্ক

যদিও এই সিদ্ধান্তের বিরোধিতা করে সোশ্যাল মিডিয়ায় সোচ্চার হয়েছেন নেটিজেনদের একাংশ। তাঁদের দাবি, কর্মক্ষেত্রে কাজের চাপ কমাতে কেউ যদি একটু বিনোদনের মাধ্যম খুঁজে নেয়, তাতে কেন এতটা কঠোর হতে হবে! প্রসঙ্গত, দিন কয়েক আগে ওড়িশায় কয়েকজন নার্সকে হাসপাতালে অসুস্থ শিশুকে নিয়ে টিকটক ভিডিও করার জন্য শো-কজ করা হয়েছিল। কর্মক্ষেত্রে কীভাবে কাজ না করে কেউ এমন কাণ্ড ঘটাতে পারে সেই প্রশ্ন তুলেই তাঁদের শো-কজ করা হয়।