আগামী ৯ ডিসেম্বর সন্ধে ৬টা পর্যন্ত সৎকার করা যাবে না হায়দরাবাদ এনকাউন্টারে নিহত চার অভিযুক্তের দেহ। শুক্রবার তেলেঙ্গানা সরকারকে এমনই নির্দেশ দিয়েছে তেলেঙ্গানা হাইকোর্ট। 

এর পাশাপাশি নিহতদের দেহের ময়নাতদন্তের প্রক্রিয়া ভিডিওগ্রাফ করে মেহবুবনগরের জেলা জজের কাছে জমা দেওয়ারও নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

এ দিন সকালেই হায়দরাবাদের তরুণী পশু চিকিৎসকের গণধর্ষণ এবং খুনের ঘটনায় চার অভিযুক্তকে এনকাউন্টারে মারে পুলিশ। দেশের আমজনতা পুলিশের কাজকে পূর্ণ সমর্থন জানালেও এভাবে এনকাউন্টারে মৃত্যু মেনে নেননি অনেকেই। কয়েকটি মানবাধিকার সংগঠনের সঙ্গে একত্রিত হয়ে হায়দরাবাদ হাইকোর্টে এনকাউন্টারের ঘটনার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন ন্যাশনাল অ্যালায়েন্স অফ পিপলস মুভমেন্ট বা এনএপিএম। 

এই আবেদনকে জনস্বার্থ মামলা হিসেবে গ্রহণ করে তড়িঘড়ি নিজের বাড়িতেই মামলাটি শোনেন বিচারপতি রামচন্দ্র রাও। তার পরেই নির্দেশ দেন তিনি। তাতে বলা হয়, আগামী ৯ তারিখ পর্যন্ত এনকাউন্টারে নিহত চারজনেরই দেহ সংরক্ষণ করতে হবে তেলেঙ্গানা সরকারকে। 

আবেদনকারীদের দাবি ছিল, অবিলম্বে বিশেষ চিকিৎসকদের দল গঠন করার জন্য নির্দেশ দিক আদালত। তেলেঙ্গানা এবং অন্ধ্র প্রদেশের বাইরে অন্য কোনও রাজ্য থেকে চিকিৎসক নিয়ে আসার জন্যও আবেদন করা হয় আদালতের কাছে। একই সঙ্গে মামলার তদন্তে বিশেষ ফরেন্সিক দলও গঠন করার আর্জি জানান মামলাকারীরা।