স্কুলে বসে ক্লাস করতে গিয়েই মৃত্যু হল ১০ বছরের বালিকার।  বুধবার দুপুরে কেরলের ওয়ানাড়ের একটি স্কুলে যখন ক্লাস চলছিল, তখন ওই বালিকাটিকে বিষধর সাপে কামড়ায়।  সাপে কামড়ানোর কথা জানার পরেও স্কুলের তরফে কোনও ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি। ঘটনার ৪০ মিনিটের মধ্যে ওই বালিকাটি মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়ে। 

প্লে-স্টোরে ভারত-বিরোধী অ্যাপ, অভিযোগ পেতেই সরিয়ে দিল গুগল, পিছনে কি আইএসআই

আর পাঁচ দিনের মতো সেদিনও পঞ্চম শ্রেণির এস সেরিন স্কুলে এসেছিল ক্লাস করতে। সেদিন ক্লাস চলার সময়ই মেঝের গর্ত থেকে একটা বিষধর সাপ শেরিনের পায়ে কামড় দেয়। অন্যান্য সহপাঠীরা বার বার  ক্লাসে উপস্থিত শিক্ষিকা জানায়, শেরিনকে সাপে কেটেছে। চিকিৎসকের কাছে নিয়ে যাওয়া প্রয়োজন। কিন্তু শিক্ষক-শিক্ষিকারা শেরিনের সহপাঠীর কথায় কর্ণপাত পর্যন্ত করেনি। 

শিবসেনা-এনসিপি-কং-এর নয়া জোট, নভেম্বরেই সরকার গড়ার ইঙ্গিত

সহপাঠীরা জানিয়েছে, শেরিনকে সাপে কামড়ানোর প্রায় সঙ্গে সঙ্গে আমরা শিক্ষিকাকে বলেছিলাম, চিকিৎসকের কাছে নিয়ে যেতে। কিন্তু শিক্ষিকা বলেছিলেন, সাপে কামড়ায়নি, পাথরে লেগেছে।  প্রায় আধঘণ্টা পর থেকে শেরিনের শরীর নীল হতে থাকে। পরে শেরিনের বাবা এসে তাকে হাসপাতালে ভর্তি করতে গেলে চিকিৎসকরা তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করে। ঘটনায় স্কুলের এক শিক্ষিকা বরখাস্ত করা হয়েছে বলে জানা গিয়েছে।