শুধু ভারত বা আমেরিকা নিয়, আস্তে আস্তে চিনকে বর্জন করতে শুরু করেছে বিশ্বের বাকি দেশগুলিও। অন্তত সাম্প্রতিক ঘটনাবলী সেদিকেই দিক নির্দেশ করছে। একের পর এক ধাক্কা আসছে চিনের উপর। সাম্প্রতিক ধাক্কা এল থাইল্যান্ডের থেকে।  বেজিং-কে বড় ধাক্কা দিয়ে ভারতের তৈরি মিলিটারি ট্রাক আমদানি করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে থাইল্যান্ড। 

ভারত ও চিনের মধ্যে লাদাখ সংঘর্ষের উত্তপ্ত পরিস্থিতিতে ভারত সরকার চিনের ওপর নির্ভর শীলতা কমানোর সিদ্ধান্ত নেয়। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী  ‘আত্মনির্ভর ভারত’ এর ডাক দিয়ে জোর সওয়াল করেন ‘ভোকাল ফর লোকাল’এর পক্ষে। এরপরেই দেশবাসী নতুন উদ্যমে স্বদেশী দ্রব্যের দিকে আকর্ষিত হয়। চিনা দ্রব্য বর্জনের হিড়িক পড়ে। পাশাপাশি দেশীয় দ্রব্য তৈরিতে উৎসাহ বাড়ে। এবার সেই ‘মেড ইন ইন্ডিয়া’ ট্র‍্যাকই নেবে থাই সরকার।

 

 

মিলিটারি সেক্টরে ব্যবহৃত যানবাহনের ক্ষেত্রে এটা এক বড় সাফল্য এসেছে ভারতের কাছে । দেশের খ্যাতনামা অটোমোবাইল ম্যানুফ্যাকচারিং সংস্থা টাটা মোটরসের থেকে  মিলিটারি ট্রাক কিনছে থাইল্যান্ড। যার চুক্তি একেবারে শেষ পর্যায়ে পৌঁছেছে। জানা যাচ্ছে থাইল্যান্ড ভারতের থেকে ৬০০ টি ট্রাক কিনছে। 

ভারতের অন্যতম বড় সংস্থা টাটা মোটরসের তৈরি এই মিলিটারি ট্রাকগুলি তাদের জন্য ভীষনই কার্যকরী বলে জানিয়েছে থাইল্যান্ড সরকার৷ টাটা মোটরস তৈরি স্বেদশী এই  ট্রাকগুলি মেন্টেইন করার দিক থেকে খুবই সুবিধাজনক। একই সাথে সঠিক দামের মধ্যেও বেশ উন্নত প্রোডাক্ট। যার কারণে বিদেশে ট্রাকগুলির চাহিদা বেড়েই চলেছে।

 

 

থাইল্যান্ড সরকারের তরফে রাষ্ট্রদূত  চুতিনটর্ন স্যাম গঙ্গসকদী ট্যুইট করেছেন, ‘আত্মনির্ভর ভারত  থেকে রয়্যাল থাই আর্মি ৬০০ টির বেশি টাটা এলপিটিএ সামরিক ট্রাক নিচ্ছে।  এই ট্র‍্যাকগুলি শক্তপোক্ত এবং মেইনটেন করা সহজ। কাজের জন্য উপযুক্ত।  জাতির সেবার জন্য উপযুক্ত ‘। যদিও ভুল বশত পোস্টে ভারতের বদলে নাইজেরিয়ার জাতীয় পতাকার ছবি দেন তিনি। পরে সেটির জন্য ক্ষমাও চেয়ে নেন।

 

 

এশিয়া মহাদেশে ভারতের সামরিক সরঞ্জামের প্রভাব চিনকে আর্থিক দিক থেকে কাউন্টার করতেও বেশ গুরুত্বপূর্ণ বলে বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন। এদিকে টাটা মোটরস দীর্ঘকাল ধরে দেশের সশস্ত্র ও আধা সামরিক বাহিনীর প্রধান প্রতিরক্ষা সরবরাহকারী হিসাবে কাজ করছে। ১৯৪০ সাল থেকে ভারতীয় সেনাবাহিনীকে বিভিন্ন যান সরবরাহ করে থাকে টাটা মোটরস।ভারত ছাড়াও সার্ক গোষ্ঠী ভুক্ত বিভিন্ন দেশ, আফ্রিকার বিভিন্ন দেশ ও রাশ্চসংঘেও মিলিটারি যানের সাপ্লাই দিয়ে থাকে টাটা মোটরস।