করোনা সংক্রমণের প্রথম দিকে দেশে  পর্যাপ্ত মাস্কের আকাল ছিল। আতঙ্কিত হয়ে বহু মানুষই বেশি দামে মাস্ক কিনেছিলেন। করোনা সংক্রমণ রুখতে প্রধান হাতিয়ারই হল মাস্ক। এই মন্তব্য করেছিল বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। এই পরিস্থিতিতে আসরে অবতীর্ণ হন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। সেই সময় তিনি দেশেবাসীর উদ্দেশ্য বলেন মাস্কের ব্যবহার অত্যান্ত আবশ্যক। পাশাপাশি তিনি এও বলেছিলেন মাস্ক না পেলে বাড়িতে থাকা যে কোনও কাপড়ও ব্যহার করা যেতে পারে। প্রয়োজনে গামছার ব্যবহারও চলতে পারে। তিনি নিজেও তাই ব্যবহার করছেন বলেও জানিয়েছিলেন। এখনও পর্যন্ত তাঁকে মাস্কের পরিবর্তে গামছার মত কাপড় ব্যবহার করতে দেখা গেছে তাঁকে। আগামী দিনে হয়তো এই জাতীয় বাহারী কাপড়কেই তিনি নিজের ফ্যাসান আইকনের সঙ্গে জুড়ে নেবেন তিনি। তেমনই মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। 

তবে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্য়ায় প্রথম দিকে বাড়িতে যাকা যে কোনও পরিচ্ছন্ন কাপড়কে মাস্ক হিসেবে ব্য়বহারের কথা বলেছিলেন। তিনি নিজেও প্রমান সাইজের রুমালকেই মাস্ক হিসেবে ব্যবহার করতেন। কিন্তু ক্রমে ক্রমে সেই মাস্কেরও পালা বদল ঘটে গেছে। বর্তমানে নীল সাদা কাপড়ের মাস্কই মনে হয় তাঁর প্রথম পছন্দ। তাতে অবস্যই রয়েছে ডিজাইন। আঁকা রয়েছে পশ্চিমবঙ্গের ছবি। আর তার ওপর লেখা রয়েছে মা। ঘাস ফুলের স্লোগানই মা মাটি মানুষ। 

রাজ্যে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রধান প্রতিপক্ষ দিলীপ ঘোষও নক্সী মাস্ক ব্যবহারের দিকেই জোর দিয়েছেন। গেরুয়া দলের নেতার গেরুয়া মাস্কই পছন্দ। আর তার ওপর আঁকা রয়েছে পদ্ম। একই ছবি দেখা গিয়েছে রাহুল সিনহার ক্ষেত্রেও। এতে একটা সুবিধে রয়েছে মাস্কের ব্যবহারের পাশাপাশি দলের প্রচারও সারা হবে। সামনেই যে এই রাজ্যে ভোট। তলে তলে রাজনৈতিক শিবিরগুলি সেই প্রস্তুতি শুরু করে দিয়েছে। 

কিছুটা পিছিয়ে থাকলেও রাজ্যের প্রথম সারির দুই বিরোধী নেতা সুজন চক্রবর্তী আর আবদুল মান্নান অবশ্য সাদামাটা মাস্কই এখনও পর্যন্ত ব্যহার করছেন। দেশের মানুষ মাস্ক কিনতে পারছে না এই অভিযোগ তুলে বামফ্রন্ট চেয়ারম্যান বিমান বসু করোনা সংক্রমণের প্রথম দিকে মাস্কের ব্যবহার করতেন না। এখন অবশ্য বাজারে চলতি সাধারণ মাস্কই ব্যবহার করেন সর্বহারা দলের নেতা। 

সূত্রের খবর করোনাভাইরাস মহামারীর আকার নেওয়ার পর বাড়ির বাইরে খুব একটা বার হচ্ছেন না কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধী। কিন্তু দিল্লিতে প্রবাসী শ্রমিকদের সঙ্গে কথা বলার জন্য যেদিন বার হয়েছিলেন সেদিন তাঁকে সাধারণ মাস্ক পরতেই দেখা গিয়েছিল। আগামী তিনি কি পরিকল্পনা গ্রহণ করেন তা এখন অপেক্ষার বিষয়। তবে একথা মানতেই হবে ভোট বাস্কের মতই বাহারী মাস্ক ব্যবাহারে তৃণমূল আর বিজেপির থেকে কিছুটা হলেও পিছিয়ে রয়েছে বাম কংগ্রেস।