বন্যার বিপদ তো ছিলই। এবার তার সঙ্গে যুক্ত হল বজ্রপাতের বিপদ। যার জেরে একদিনে বিহারে মৃত্যু হল অন্তত ৩২ জনের। এর পাশাপাশি আরও বেশ কিছু মানুষ বজ্রঘাতের ফলে আহত হয়েছেন। আহতদের মধ্যে রয়েছেন মহিলা এবং শিশুরাও। 

সংবাদসংস্থার খবর অনুযায়ী, বুধবার দিনভর বিহারের বিভিন্ন এলাকায় দুর্যোগ চলাকালীন বজ্রঘাতের জেরে এই মৃত্যু হয় সাধারণ মানুষের। এর মধ্যে সবথেকে বেশি মৃত্যুর ঘটনা ঘটে ঔরঙ্গাবাদে। পাঁচজনের মৃত্যু হয় বাঁকাতে। ভাগলপুর এবং রোহতাসে তিনটি করে মৃত্যুর ঘটনা ঘটে। এছাড়াও নালন্দা, গয়া, মুঙ্গের, কাটিহার এবং আড়ারিয়া জেলায় বেশ কয়েকজনের মৃত্যু হয়েছে। 

আরও পড়ুন- বন্যার জেরে বিহার ও অসমে মৃত ১৭০, বিপর্যস্ত অন্তত ১ কোটি মানুষ

আরও পড়ুন- বাজ পড়ে উত্তরপ্রদেশে প্রাণ গেল অন্তত ৩৭ জনের, আহত প্রায় ১৩

আবহাওয়া দফতরের খবর অনুযায়ী, জুন থেকে সেপ্টেম্বরের মধ্যে বর্ষার সময়ে বজ্রপাতের ঘটনা ঘটে বিহারে। বজ্রপাতের ঘটনায় যাঁদের মৃত্যু হয়েছে, তাঁদের পরিবারকে চার লক্ষ টাকা করে ক্ষতিপূরণ দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। 

অন্যদিকে বিহারে বন্যার জেরে মৃতের সংখ্যাও বাড়ছে। বন্যার জেরে রাজ্যে মৃতের সংখ্যা একশো ছাড়িয়েছে। আশি লক্ষেরও বেশি মানুষ বিহারের ভয়াবহ বন্যার জেরে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। মোট বারোটি জেলা বন্যার কবলে পড়েছে। তবে রাজ্য প্রশাসনকে স্বস্তি দিয়ে নদীগুলির জলস্তর আস্তে আস্তে নামছে। বিপর্যস্ত এলাকাগুলি থেকেও জল নামতে শুরু করেছে। ত্রাণ শিবির ছেড়ে ধীরে ধীরে ঘরে ফিরতে শুরু করেছেন জলবন্দি মানুষ।