চারিদিকে জলসংকট যখন ভয়াবহ আকার ধারণ করেছে তখন জল অপচয় রোধ করা নিয়েও চলছে নানা প্রকারের অভিযান। জলের অভাবে অদূর ভবিষ্যতে কী কী সমস্যা হতে পারে সেইসব নিয়ে সরব হয়েছেন সব মহল। আর তখনই জল অপচয় বন্ধ করতে এক অদ্ভুত পদ্ধতি অবলম্বন করলেন চেন্নাইয়ের এক ব্যক্তি।

জল অপচয় রোধ করতে চেন্নাইয়ের বাসিন্দা অ্যান্টনি রাজ কিনেছেন একটি বড় প্লাস্টিকের গামলা। সেই প্লাস্টিকের গামলায় বসেই স্নান করেন তিনি। এখানেই শেষ নয়, স্নান হয়ে যাওয়ার পর সেই অতিরিক্ত জল তিনি ভরে দেন কমোডের ফ্ল্যাশট্যাঙ্কে। জলের অপচয় রুখতে এমনই অবাক করা উপায়ে জল সংরক্ষণ এবং তা পুনরায় ব্যবহার করার পদ্ধতি বেছে নিয়েছেন অ্যান্টনি। 

সংবাদ মাধ্যমকে দেওয়া একটি সাক্ষাতকারে অ্যান্টনি জানিয়েছেন, তাঁর বাড়িতে যখন জলের অভাব দেখা দিল, ঠিক তখনই এই ভাবনাটি তাঁর মাথায় খেলে। কমোডে ফ্লাশ করার সময়ে অনেকটা পরিমাণে জল এমনিই অপচয় হয়ে যায়। আর এইভাবে জল অপচয় রোধ করতেই এমন অভিনব ভাবনা মাথায় আসে তাঁর।

তিনি আরও জানান যে তাঁর এই অভিনব ভাবনায় তাঁকে সঙ্গ দিচ্ছে তাঁর পরিবারও। তিনি জানিয়েছেন, প্রতিদিন বাড়ির সকল সদস্যের স্নান সেরে নেওয়ার পর ওই জল দিনে দুই থেকে তিনবার কমোডের ফ্লাশট্যাঙ্কে ভরা হয়। এইভাবেই জলের অকারণ অপচয় রোধ করার এই অভিনব পন্থাটি তিনি তাঁর বন্ধু বান্ধবের মধ্যেও ছড়িয়ে দিয়েছেন। তাঁর দাবি সকলে এই পদ্ধতি অবলম্বন করলে খুব  সহজেই জলের অপচয় বন্ধ করা সম্ভব।