কোভিড-১৯ রোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়েছিল তাদের আত্মীয়ের। সেই আত্মীয়ের শেষকৃত্য করতে গিয়ে রহস্যজনকবাবে মৃত্যু হল আরও দুইজনের। চিকিৎসকরাও তাঁদের মৃত্যুর কারণ সঠিকভাবে নির্ধারণ করতে পারেননি। এই ঘটনায় জম্মুতে দারুণ আতঙ্ক ছড়িয়েছে। এই বিষয়ে বিচার বিভাগীয় তদন্তের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

বুধবার কোভিড-১৯ রোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্য়ু হয়েছিল ৬৫ বছরের এক ব্যক্তির। ৬৫ বছর বয়সী ওই ব্যক্তির বিদেশে ভ্রমণের ইতিহাস রয়েছে বলে জানা গিয়েছিল। সেই সঙ্গে গায়ে ছিল জ্বর। দিনকয়েক আগে তাঁকে জম্মুর সরকারি মেডিকেল কলেজে ভর্তি করা হয়েছিল। পরে তাঁর কোভিড-১৯ পরীক্ষার ফল এসেছিল ইতিবাচক। বুধবার বিকেলে যখন তার শেষকৃত্য হয়। সেখানে যোগ দিয়েছিলেন তাঁর দুই ভাগ্নে। দাহ চলাকালীন ৩৫ ও ৪৫ বছর বয়সী ওই দুই ব্যক্তি আচমকা সংজ্ঞা হারান।

তাঁদের সঙ্গে সঙ্গে জম্মুর সরকারি মেডিকেল কলেজে আনা হয়েছিল। বৃহস্পতিবার তাঁদের দুজনেরই মৃত্যু হয়। কিন্তু, তাঁদের মৃত্যুর কারণ জানা যায়নি। চিকিত্সকরা সরাসরি জানিয়েছেন তাঁদের মৃত্যুর কারণ অজানা। এই নিয়ে জম্মুতে প্রবল চাঞ্চল্য তৈরি হয়। এরপরই জম্মুর জেলা ম্যাজিস্ট্রেট পুরো ঘটনার বিচার বিভাগীয় তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন। জম্মুর অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট (আইন শৃঙ্খলা)-কে এই হিষয়ে বিস্তারিত তদন্তের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। ২২ জুনের মধ্যে তাকে এই বিষয়ে প্রতিবেদন জমা দিতে হবে। মৃত দুজনেরই দেহের ময়নাতদন্ত করা হবে।

মৃতদের পরিবারের দাবি উচ্চ তাপমাত্রার মধ্যে পিইই কিট  পরে থাকায় তাদের 'ডিহাইড্রেশন' হয়ে গিয়েছিল। তাতেই তাঁদের মৃত্যু হয়েছে। প্রসঙ্গত বুধবার জম্মুতে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৪২ ডিগ্রি সেলসিয়াস। পরিবারের দাবি ওই দুই ভাই শুধু তাদের মামার শেষকাজেই যোগ দিয়েছিলেন, তাছাড়া ওই কোভিড আক্রান্ত ব্যক্তির সঙ্গে তাদের কোনও যোগাযোগ ছিল না। এমনকী বুধবারও এই দুজন শ্মশানে গিয়েছিলেন তাদের নিজস্ব গাড়িতেই।