ভুবনেশ্বর বিমানবন্দরের একাংশ হঠাৎ ভয়াবহভাবে ভেঙে পড়ল। শনিবার সকালে ১ নম্বর টার্মিনাল এবং ২ নম্বর টার্মিনালকে সংযোগকারী ছাদটি ভেঙে  পড়ে মৃত্যু হয়েছে একজনের। গুরুতর জখম অবস্থায় আরেকজন ভর্তি হাসপাতালে। কিন্তু কী কারণে ভুবনেশ্বর বিমানবন্দরের এই নির্মীয়মাণ অংশটি এভাবে ভেঙে পড়ল, তা নিয়ে যথেষ্ট ধোঁয়াশা তৈরি হয়েছে ।

 

শনিবার সকালে আচমকাই ভুবনেশ্বর বিমানবন্দরে শুরু হয় শোরগোল। ১ নম্বর টার্মিনাল এবং ২ নম্বর টার্মিনালকে সংযোগকারী ছাদটি হঠাৎ ভেঙে পড়ে। দুর্ঘটনার খবর পেয়েই ঘটনাস্থলে পৌঁছে যায় জাতীয় বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনী, দমকল বাহিনী-সহ উদ্ধারকারী দল। দ্রুত তৎপরতার সঙ্গে শুরু হয় উদ্ধারকাজ। তবে ততক্ষণে ধ্বংসস্তূপের নীচে চাপা পড়ে মৃত্যু হয় এক নির্মাণকর্মীর। অন্তর্যামী গুরু নামে ওই ব্যক্তি নির্মাণ কাজের জন্য যুক্ত ছিলেন। আর আচমকাই কিছু বুঝে ওঠার আগেই ভেঙে পড়ে, বিমানবন্দরের নির্মীয়মাণ  একাংশ। আর প্রাণ হারান ওই ব্যক্তি। এই দুর্ঘটনায় আরও একজন শ্রমিক গুরুতরভাবে জখম হয়েছেন।  আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাঁকে ভুবনেশ্বরের  হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

 

 


 উদ্ধারকারী দলের সদস্য প্রদীপ জানা জানিয়েছেন,  ধ্বংসস্তূপের নীচে আর কেউ চাপা পড়ে  আছে কিনা সেজন্য়  এখনও দুর্ঘটনাস্থলে তল্লাশি চলছে।  কিন্তু কী কারণে ভুবনেশ্বর বিমানবন্দরের এই নির্মীয়মাণ অংশটি এভাবে ভেঙে পড়ল, তা নিয়ে যথেষ্ট ধোঁয়াশা কাটছে না। যে সংস্থা এই কাজ করছিল, তাদের সঙ্গে প্রশাসনের তরফে কথা বলা শুরু হয়েছে। এই মুহূর্তে ভুবনেশ্বর বিমানবন্দরের দুর্ঘটনাস্থলটি  ঘিরে রাখা হয়েছে। যাত্রী নিরাপত্তার জন্য় এখন কাউকে ওই এলাকার দিকে ঢুকতে দেওয়া হচ্ছে না।