ব্যাঙ্ক ডিপোজিট ইনস্যুরেন্স অর্থাৎ ব্যাঙ্কে রাখা অর্থের বিমা একলাফে পাঁচগুণ বাড়ানো হল কেন্দ্রীয় বাজেট ২০২০-তে। ১ লক্ষ টাকা থেকে বিমার পরিমাণ বাড়িয়ে ৫ লক্ষ টাকা করা হল। এতদিন, ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে যতই টাকা থাকুক না কেন, যদি ব্যাঙ্ক দেউলিয়া হয়ে যেত তাহলে গ্রাহক ১ লক্ষ টাকার বেশি ফেরত পেতেন না। এবার থেকে পাওয়া যাবে ৫ লক্ষ টাকা।

২০১৯ সালে পঞ্জাব অ্যান্ড মহারাষ্ট্র ব্যাঙ্ক দেউলিয়া হয়ে যাওয়ায় হাজার হাজার মানুষ সমস্যার সম্মুখিন হন। এমনকী অর্থের অভাবে চিকিৎসা করাতে না পেরে অনেকের মৃত্যুও হয়। এরপরই, এই বিষয় নিয়ে তীব্র সমালোচনা মুখে পড়তে হয়েছিল ভারতীয় রিজার্ভ ব্যাঙ্ককে। তারপর থেকেই শোনা যাচ্ছিল ব্যাঙ্ক ডিপোজিট ইনস্যুরেন্সজএর পরিমাণ বাড়িয়ে দ্বিগুণ করা হবে। কিন্তু, সেই প্রত্যাশা ছাপিয়ে একলাফে পাঁচগুণ করা হল বিমার পরিমাণ।

এই বাজেট প্রস্তাব গৃহিত হলে ডিপোজিট ইনস্যুরেন্স অ্যান্ড ক্রেডিট গ্যারান্টি কর্পোরেশন (ডিআইসিজিসি)-এর আইনে একটি সংশোধনী আনতে হবে। বর্তমানে, ১৯৬১ সালের ডিআইসিজিসি আইনে ১ লক্ষ টাকা বা তার বেশি আমানতের ক্ষেত্রে ১ লক্ষ টাকা পর্যন্ত বীমা দেওয়া হত। বাকি টাকা ব্যাঙ্কের দেউলিয়া হলে বাজেয়াপ্ত করা হত। এই ক্ষতিপূরণের পরিমাণটি নির্ধারণ করা হয়েছিল ২৫ বছর আগে।