দিল্লির দূষণ নিয়ে রীতিমতো আতঙ্কে বাসিন্দারা। সুপ্রিম কোর্ট অবধি সোমবার তীব্র উদ্বেগ প্রকাশ করেছে। এরমধ্যে উত্তরপ্রদেশের মন্ত্রী সুনীল ভরলার যজ্ঞ করার পরামর্শের পর দূষণ থেকে বাঁচতে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী হর্ষবর্ধন দিলেন গাজর দাওয়াই। তবে তা মোটেই ভালভাবে নিল না নেটদুনিয়া। সরাসরি জিজ্ঞেস করা হল গাজরের হালুয়া চলবে?

কেন্দ্রীয় স্বাস্থমন্ত্রী ইট রাইট ইন্ডিয়া প্রকল্পের একটি পোস্টার টুইট করে সঙ্গে লিখেছিলেন, গাজর খেলে শরীরে ভিটামিন এ, পটাসিয়াম এবং অ্যান্টিঅক্সিড্যান্টস বাড়ে যা রাতকানা রোগ থেকে রক্ষা করে। এরই সঙ্গে লেখেন গাজর দূষণজনিত স্বাস্থ্যের ক্ষতির বিরুদ্ধেও কার্যকরি।

অন্য সময় হলে কোনও সমস্যা ছিল না, কিন্তু গত ১৭ দিন ধরে দিল্লির বাতাসের গুণমান সিভিয়ার পর্যায়ের উপরে রয়েছে। রবিবার দিল্লিতে জনস্বাস্থ্যের জরুরী অবস্থা জারি করতে হয়েছে। এই সময়ে হর্ষবর্ধনের এই টুইট মোটেই ভালভাবে নেয়নি নেটিজেনরা। ব্যঙ্গে কটাক্ষে তারা ক্ষোভ প্রকাশ করেছে।

একজন বলেছেন, এর মানে সরকার কি বলতে চাইছে দূষণ রোধ করতে পারব না, আপনারা গাজর খান? আরেকজন বলেছেন গাজর খেয়ে চোখ ভাল হলে ধোঁয়ায় অন্ধকারাচ্ছন্ন দিল্লিকেও উজ্জ্বল মনে হবে। আরেকজন গাজরে নাক-কান বন্ধ হওয়ার মিম পোস্ট করেছেন। আরেকজন রসিকতা করে জিজ্ঞেস করেছেন গাজরের হালুয়া খেলে চলবে? এছাড়া অজস্র ব্যজ্ঞাত্মক মিমও তৈরি হয়েছে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রীর এই পোস্ট নিয়ে।