ভারতে দিন কে দিন কমছে নারীদের মূল্য। হায়দরাবাদ ও উন্নাও - পর পর দুই বীভিষিকাময় ঘটনার পর সামনে এল আরও একটি নক্কারজনক ঘটনা। দিন দুই আগেই যোগী আদিত্যনাথ এবং প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী দাবি করেছিলেন, উত্তরপ্রদেশের আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি খুবই ভালো। তারপরই বৃহস্পতিবার উন্নাও-এর ঘটনা ঘটে। আর এবার স্রেফ নাচা বন্ধ করার 'অপরাধ'-এ এক নর্তকীর মুখে গুলি করা হল।

হাল্কা ক্রিম ও গোলাপী রঙা পর্দা, ডিস্কো লাইট ও নাচ-গান'এ জমে উঠেছিল বিয়েবাড়ির আসর। কিন্তু তাল কেটে যায় গুলি চালনার ঘটনায়। ঘটনাটি ঘটেছে ডিসেম্বরের ১ তারিখে। এদিন এই ঘটনার একটি ভিডিও সোশ্য়াল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে। তাতেই য়োগী রাজ্যে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির করুণ দশাটা স্পষ্ট হয়েছে।

ভিডিও-তে দেখা গিয়েছে, দুই নর্তকী বিয়েবাড়িতে গানের সঙ্গে নাচছেন। গান বন্ধ হওয়ার পর তাঁরা নাচও থামান। তারপরই ভিডিও-তে একটি গুলি চালানোর শব্দ পাওয়া য়ায়। সেই সঙ্গে শোনা যায়, একজন হুমকির সুরে বলছেন, 'নাচা বন্ধ করলেই গুলি চলবে'। এরপরই আরও একটি গুলির শব্দ শোনা যায়, যেটি সরাসরি এক নর্তকীর মুখে লাগে। ভিডিওতে দেখা গিয়েছে, ওই নর্তকী দুহাত দিয়ে মুখ ধরে মাটিতে লুটিয়ে পড়ছেন। আরেক নর্তকী তাঁর সাহায্যে এগিয়ে আসেন।  

সংবাদ সংস্থা পিটিআই জানিয়েছে, ২০ বছরের ওই নর্তকী চোয়ালের গুরুতর আঘাত পেয়েছেন। কিন্তু তাঁর প্রাণের ঝুঁকি কেটে গিয়েছে। তিনি ছাড়াও বিয়ে বাড়িতে থাকা আরও দুইজন আহত হয়েছেন। গুলি ছোড়া দুই জনের নাম সুধীর সিং ও ফুল সিং। তাদের গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

দেখে নিন সেই ভাইরাল হওয়া ভিডিওটি -