একেবারে মৃত্যুর মুখ থেকে ফিরে আসা। সেই অভিজ্ঞতাই হল উত্তরাখণ্ড হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতি রমেশ রঙ্গনাথনের। দেবপ্রয়াগে নিজের স্ত্রীকে নিয়ে পুজো দিতে গিয়েছিলেন তিনি। অল্পের জন্য প্রাণে বেঁচে ফিরলেন প্রধান বিচারপতি।

আরও পড়ুন: করোনার থাবা এবার উত্তর কোরিয়াতেও, প্রথম আক্রান্তকে গুলি করে মারলেন কিম

আরও পড়ুন: নির্ভয়ার দোষীদের ফাঁসি নিয়ে ফের তৈরি সংশয়, রাষ্ট্রপতির কাছে আবার প্রাণভিক্ষা অক্ষয়ের

হিন্দুদের পবিত্র তীর্থস্থানগুলির মধ্যে অন্যতম দেবপ্রয়াগ। গঙ্গার সঙ্গে এখানে এসে মিলিত হয়েছে অলকানন্দা ও ভাগীরথি। শনিবার দেবপ্রয়াগে রঘুনাথ মন্দিরে পুজো দিয়ে সঙ্গমে নামেন  উত্তরাখণ্ড হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতি রমেশ রঙ্গনাথন। খরস্রোতা নদীর সিঁড়িতে এক পা নামতেই পা পিছলে যায় তাঁর। আর একটু হলেই জলে ভেসে যাচ্ছিলেন তিনি। তবে কথায় আছে রাখে হরি মারে কে। রমেশ রঙ্গনাথনকে সঙ্গে সঙ্গে ধর ফেলেন নরেন্দ্র নগরের প্রধান আধিকের দায়িত্বে থাকা প্রমোদ শাহ। তাঁর প্রতুৎপন্নমতিত্বে প্রাণে বেঁচে যান প্রধান বিচারপতি। 

 

 

বর্তমানে রঙ্গনাথন উত্তরাখণ্ড হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতির দায়িত্ব সামলাচ্ছেন। এর আগে হায়দরবাদ হাইকোর্টে ভারপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতি হিসাবে সাড়ে তেরোবছর কর্তব্য পালন করেছেন।