লাগাতার বৃষ্টিতে কার্যত নাজেহাল অবস্থার মধ্যে পড়েছেন গুজরাতের ভাদোদরাবাসী। টানা বৃষ্টির কারণে স্তব্ধ সেখানকার জনজীবন। বৃহস্পতিবার পর্যন্ত গত ২৪ ঘণ্টায় সেখানে ৪৯৯ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত হয়েছে। গতকাল থেকেই সেখানকার একাধিক ভিডিওএ ফুটেজ ভাইরাল হয়েছে, যেখানে দেখা গিয়েছে রাস্তার জমা জলে ঘুরে বেড়াচ্ছে কুমির।  

প্রবল বৃষ্টির কারণে ইতিমধ্যেই প্রাণ হারিয়েছেন বেশ কয়েকজন মানুষ। প্রশাসনিক তৎপরতায় এখনও পর্যন্ত প্রায় পাঁচ হাজারেরও বেশি মানুষকে নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। উদ্ধারকাজ এখনও জারি রয়েছে বলে খবর। আর এরই মধ্য়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হওয়া একটি ভিডিওকে ঘিরে প্রশংসার বন্যা বয়ে গিয়েছে সাধারণ মানুষের মধ্যে। 

 

ভাইরাল হওয়া ওই ভিডিওতে দেখা গিয়েছে এক ব্যক্তি প্রায় গলা সমান জলে দাঁড়িয়ে উদ্ধার করে নিয়ে আসছেন একটি শিশু সন্তানকে। জানা গিয়েছে ওই ব্যক্তি হলেন পুলিশের সাব-ইন্সপেকটার গোবিন্দ ছাবড়া। বিশ্বামিত্র রেলস্টেশনের কাছে দেবীপুরা এলাকায় একটি দুই বছরের দুধের শিশুকে প্রায় গলা সমান জলে দাঁড়িয়ে উদ্ধার করে নিয়ে আসছেন তিনি। 

প্রসঙ্গত ওই এলাকায় বন্যার সম্ভাবনা রয়েছে জেনে পুলিশের একটি দল সেখানে গিয়ে উপস্থিত হন, এবং তড়িঘড়ি এলাকার বাসিন্দাদের নিরাপদ স্থানে যাওয়ার জন্য নির্দেশ দেন। জানা গিয়েছে ওই পুলিশকর্মীর কাছে খবর ছিল যে, বন্যার কারণে একটি শিশু এবং তাঁর মা আটকে পড়েছিল। পরিস্থিতি বুঝে ভদ্রমহিলার কাছে একটি প্লাস্টিকের গামলা চান তিনি, কারণ জলস্তর যেখানে ছিল সেই পরিস্থিতিতে ওই শিশুকে কখনওই কোলে করে উদ্ধার করা সম্ভব হত না। তাঁর সাহসিকতাকে কুর্নিশ জানিয়েছেন নেটিজেনরা।