সম্প্রতি নোটিজেনদের জীবনে যেন বার্ধক্য নেমে এসেছে। বুড়ো হওয়ার হিরিকে সামিল হয়েছেন সকল বয়সের মানুষ। বয়সকালের ছবি ধরা অ্যাপের মাধ্যমে ধরা পড়ছে খুব সহজেই। আপনার বয়স যা-ই হোক না কেন, ভাইরাল ফটো এডিটিং অ্যাপ ফেস অ্যাপের সাহায্যে আপনি খুব সহজেই ফুটে উঠবে আপনার বয়সকালের ছবি। আর নিজের বার্ধক্যদশা দেখার জন্যই রাতারাতি ভাইরাল হয়ে গিয়েছে অনলাইন ফটো এডিটিং অ্যাপ ফেস অ্যাপ। 

কিন্তু রাতারাতি জনপ্রিয় হলেও এই অ্যাপকে ঘিরে দেখা গিয়েছে নানা সমস্যা। অনেক ব্যবহারকারীর দাবি গুগল প্লে স্টোর বা অ্যাপেল স্টোর থেকে ডাউনলোড করার সময়ে সেটি লোডিং-এর ক্ষেত্রে দেখা দিচ্ছে সমস্যা। বিশেষত অ্যান্ড্রয়েড ব্যবহারকারীরা এই অ্যাপটির ডাউনলোড করার সময়ে অনেকেই 'সামথিং ওয়েন্ট রং, প্লিজ ট্রাই এগেইন' বার্তার সম্মুখিন হচ্ছেন। আইওএস ব্যবহারকারীদেরও এই একই ধরণের 'এরর' বার্তা পাচ্ছেন।  বিষয়টি প্রথমে প্রকাশ্যে আসে কয়েকজন টুইটার ব্যবহারকারী পোস্টের ভিত্তিতে। পরে একাধিক সংবাদ মাধ্যমে এই একই খবর প্রকাশের পর এই খবর নিশ্চিত করা হয়। 

বিয়ের দিনের শাড়ি পরা ছবি পোস্ট করে জল্পনা উস্কে দিলেন প্রিয়ঙ্কা

জানা গিয়েছে কেবলমাত্র ভাররতের ব্যবহারকারীদের ক্ষেত্রেই এই সমস্যাটি দেখা দিয়েছে। আর এরপরই অ্যাপটি নিষিদ্ধ হয়ে যাওয়ার খবর নিয়ে শুরু হয়েছে জোর জল্পনা। অনেকেই মনে করছেন তবে কি এবার ভারতে নিষিদ্ধ করে দেওয়া হবে ফেস অ্যাপ। সেই নিয়ে এখন গুঞ্জন শুরু হয়েছে নেটিজেনদের মনে। যদিও এই নিয়ে অ্যাপ কর্তৃপক্ষের তরফ থেকে কিছুই জানা যায়নি।