এতদিন খোলা ছিল শুধু অপরিহার্য পরিষেবাগুলি। শনিবার থেকে তার বাইরে আরও বেশ কিছু দোকান ও পরিষেবা চালু করার অনুমতি দিল স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক। শপিংমল ব্যতীত গ্রামীণ অঞ্চলের সকল দোকান খোলা হবে। আর শহরাঞ্চলে বাজার ও মার্কেট কমপ্লেক্স, এবং শপিংমলগুলি খোলার অনুমতি দেওয়া হয়নি। ই-কমার্স সংস্থাগুলি শুধুমাত্র প্রয়োজনীয় পণ্যগুলিই সরবরাহ করতে পারবে।

শুক্রবার মধ্যরাতেই স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক করোনাভাইরাস মহামারির মধ্যে ২৫ এপ্রিল থেকে বেশ দোকান ও পরিষেবা চালু করার অনুমতি দিয়েছিল। তবে দোকানগুলিতে ৫০ শতাংশ কর্মী নিয়ে কাজ করতে হবে এবং কোভিড-১৯'এর বিরুদ্ধে মাস্ক পরা এবং সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার মতো সতর্কতা নেওয়া বাধ্যতামূলক। এই সবটাই অবশ্য হটস্পট এবং কনটেইনমেন্ট জোনের বাইরের অংশের জন্য প্রযোজ্য।

কোন কোন দোকান খোলা হবে?

সংশ্লিষ্ট রাজ্য বা কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলগুলির শপস অ্যান্ড এস্টাবলিশমেন্ট অ্য়াক্টের আওতায় নিবন্ধিত সমস্ত দোকান

পৌর কর্পোরেশন এবং পৌরসভার মধ্যে আবাসিক কমপ্লেক্সের দোকানগুলি

পৌর কর্পোরেশন এবং পৌরসভার সীমানার মধ্যে আশেপাশের দোকানগুলি

পৌর কর্পোরেশন এবং পৌরসভার সীমার মধ্যে একক দোকানগুলি

শপিংমল বাদে গ্রামীণ অঞ্চলের সব বাজার

শহরাঞ্চলে পুর কর্পোরেশন এবং পৌরসভার সীমার মধ্যে সমস্ত অ-অপরিহার্ষ পণ্য এবং পরিষেবাগুলি

শহরাঞ্চলে, সমস্ত একক দোকান / আশপাশের দোকান এবং আবাসিক কমপ্লেক্সগুলির দোকান খোলার অনুমতি রয়েছে

 

কী খোলা হবে না?

রেস্তোঁরা

মদের দোকান

চুল কাটার দোকান

শহরাঞ্চলে, বাজার / মার্কেট কমপ্লেক্স এবং শপিংমলগুলির দোকান

পুর কর্পোরেশন এবং পৌরসভার সীমার বাইরে মার্কেট কমপ্লেক্স

মাল্টি ব্র্যান্ড এবং একক ব্র্যান্ডের মল

হটস্পট এবং কন্টেন্টমেন্ট জোনগুলির অপরিহার্য পণ্য বাদে অন্য়ান্য সব দোকান