আমেরিকার এলিট বাহিনী  ইতিমধ্যে আইএস প্রধান আবু বকর আল-বাগদাদিকে হত্যা করেছে। এরপর থেকেই আইএসের পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী কে হবেন সেই নিয়ে জল্পনা শুরু হয়ে গিয়েছে বিশ্ব জুড়ে। জানা গিয়েছে, বাগদাদির মৃত্যুর আগেই আবদুল্লা কুর্দশকে আইএসের প্রধান হিসেবে নির্বাচন করা হয়েছে। সিরিয়ার উত্তরপূর্বে দুর্গম অঞ্চলে বাগদাদির সঙ্গে কুর্দশ থাকত বলে অনুমান।  আমেরিকার এলিট বাহিনীর হামলায় কুর্দশের মৃত্যু হতে পারে বলে জল্পনা তুঙ্গে। 

কুর্দশ আগে ইরাকের সেনাবাহিনীর আধিকারিক ছিলেন। মার্কিন নেতত্বাধীন ইরাকের জেলে বাগদাদির সঙ্গে কুর্দশ থাকত বলে জানা গিয়েছে। আইএসের মুখপত্র আমাক এক মাস আগে এক বিবৃতিতে কুর্দশকে আইএসের প্রধান বলে দাবি করেছিল। কিন্তু বাগদাদির মৃত্যুর আগে আইএসের তরফে আনুষ্ঠানিক ভাবে কুর্দশকে আইএসের প্রধান হিসেবে ঘোষণা করা হয়নি। মার্কিন এলিট বাহিনীর হামলায় কুর্দশের মৃত্যু হয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে। সেই বিষয়ে এখনও কোনও  বিবৃতি আইএসের তরফে প্রকাশ করা হয়নি।  বিশেষজ্ঞ মহল দাবি করেছে, আইএসের এখন ভঙ্গুর দশা। অভ্যন্তরে আইএল কতটা সক্রিয় রয়েছে, কুর্দশকে প্রধান হিসেবে মেনে নিতে আইএস জঙ্গিরা একমত কি না অথবা আইএসের অন্তর্দ্বন্দ্ব কী পর্যায়ে রয়েছে তা এখনও বোঝা যাচ্ছে না।  তাই এখনই আইএসের প্রধান কে হবে সেই বিষয়ে কোনও তথ্য পাওয়া অসম্ভব। আইএসের আনুষ্ঠানিক ঘোষণাতেই বোঝা যাবে, তাদের পরবর্তী প্রধান কে হতে চলেছে। 

আরও পড়ুন বাগদাদিকে হত্যা করতে কীভাবে অভিযান চালানো হয়েছিল, বর্ণনা দিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট


আইএসের শীর্ষ স্থানীয় বেশিরভাগ নেতা বর্তমানে সিরিয়া ও ইরাক থেকে নিশ্চিহ্ন হয়ে গিয়েছে।  বিশ্লেষকরা মনে করছেন, এইমুহূর্তে  আইএসের তথাগতিত কোনও উত্তরসূরি হবে না। আইএসের উত্তরসূরির বিষয়ে বাগদাদি আগেই হয়তো অন্য কিছু কল্পনা করে রেখেছিলেন। আইএসের পরবর্তী উত্তরসূরী কে হবে, সেই নিয়ে এখনই কিছু বলা সম্ভব নয়। অন্য দিকে, কুর্দশের মেয়ে এখন ইরাকের গুপ্তচর সংস্থায় কাছ করছেন। তিনি এবং তাঁর পরিবারের সদস্যরা জানিয়েছেন, ২০১৭ সালেই কুর্দশ নিহত হয়েছেন।