সরকারি পরিচয়ে মহিলার থেকে টাকা হাতানোর মতলব করেছিল যুবক। কিন্তু তাকে ফাঁদে ফেলে মহিলা যে এভাবে জুতোপেটা করবে, তা বোধহয় ভাবতে পারেনি প্রতারক। টাকার লোভে এসে তাই মাঝরাস্তায় বেধড়ক মার খেয়ে শ্রীঘরে যেতে হল অভিযুক্তকে। ঘটনাটি ঘটেছে ঝাড়খণ্ডের জামশেদপুরের ম্যাঙ্গো এলাকায়। 

জানা গিয়েছে, কোনও একটি পারিবারিক সমস্যার মধ্যে পড়েছিলেন ওই মহিলা। তাঁকে সেই সমস্যা মিটিয়ে দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দেয় অভিযুক্ত যুবক। নিজেকে দুর্নীতি দমন শাখার অফিসার হিসেবে পরিচয় দেয় সে। সমস্যা মিটিয়ে দেওয়ার নামে মহিলার থেকে পঞ্চাশ হাজার টাকা চায় অভিযুক্ত।

 

 

কিন্তু কোনওভাবে প্রতারকের চাল ধরতে পেরে যান মহিলা. যদিও, তাকে উপযুক্ত শাস্তি দেওয়ার কারণেই কিছু বুঝতে দেননি তিনি. টাকা দেওয়ার নাম করে বুধবার সকালে অভিযুক্ত যুবককে ম্যাঙ্গো এলাকায় আসতে বলেন তিনি. আগেভাগে খবর পাঠিয়ে রাখেন পুলিশকে.

টাকার লোভে যথাসময়ে নির্দিষ্ট জায়গায় চলে আসে অভিযুক্ত. আড়াল থেকেই যুবকের গতিবিধির উপরে নজর রাখছিলেন মহিলা। যুবক আসার পরেই প্রথমে লাঠি নিয়ে তার উপরে হামলা চালান মহিলার পরিচিত এক ব্যক্তি। রীতিমতো ফিল্মি কায়দায় অভিযুক্তকে রাস্তায় ফেলে লাঠিপেটা করতে থাকেন তিনি. লাঠির ঘায়ে অভিযুক্ত কিছুটা বেসামাল হয়ে পড়তেই তার উপরে ঝাঁপিয়ে পড়েন মহিলা। পায়ের চটি খুলে তাই দিয়েই অভিযুক্তকে পেটাতে থাকেন তিনি। দুর্নীতি দমন শাখার অফিসার সেজে থাকা যুবকের তখন ছেড়ে দে মা কেঁদে বাঁচি অবস্থা. যদিও দ্রুত যুবককে উদ্ধার করে গাড়িতে তুলে নেয় পুলিশ। 

অভিযুক্ত যুবকের কাছ থেকে নকল আইডি কার্ডও পেয়েছে পুলিশ। তাকে জেরা করে আসল উদ্দেশ্য জানার চেষ্টা করা হচ্ছে।