তিন তালাক-কে কেন্দ্র করে একাধিক নৃশংস ঘটনার কথা প্রকশ্যে এসেছে। কিন্তু উত্তরপ্রদেশের এই ঘটনায় কার্যত হতবাক সকলে। সূত্রের খবর তিন তালাক-এর পরে তা নিয়ে আইনের দ্বারস্থ হন স্ত্রী, আর সেই কারণেই শ্বশুরবাড়ির তরফে নির্মমভাবে মারধর করা হয় বাড়ির বউকে। 

ঘটনাটি ঘটেছে উত্তরপ্রদেশের সীতাপুরে। পুলিশ সূত্রে খবর, এক মহিলা থানায় এসে অভিযোগ দায়ের করেন, যে তাঁর স্বামী ফোন করে তাঁকে তিন তালাক দেন। দুই পরিবারের হস্তক্ষেপেও কোনও রফাসূত্রে না পৌঁছানোয়, থানায় নিজের স্বামী এবং পরিবারের বিরুদ্ধে এসে অভিযোগ দায়ের করেন তিনি। জানা গিয়েছে, তার পর থেকেই ওই মহিলার ওপর অকথ্য অত্যাচার চালাতে শুরু করেন তার শ্বশুরবাড়ির লোকজন। 

পুলিশকে দেওয়া বয়ানে ওই মহিলার মা জানিয়েছেন, নিজের মেয়ের শ্বশুরবাড়ির বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করার জন্য থানায় যান তিনি। মেয়ের শ্বশুরবাড়ির লোকরা তাদের হুমকি দেয় যে, এই মুহূর্তে ওই মহিলা যদি অভিযোগ না তুলে নেন তাহলে তাঁকে মারধর করা হবে। তা না  করায় শ্বশুরবাড়ির লোকের কাছে নির্মমভাবে অত্যাচারিত হয়েছেন ওই মহিলা। অভিযোগ ধারাল অস্ত্রের সাহায্যে তার নাক কেটে ফেলা হয়েছে। আহত মহিলাকে চিকিৎসার জন্য নিয়ে যাওয়া হয়েছে হাসপাতালে। 

প্রসঙ্গত তিন তালাক রোধ করতে নতুন আইন নিয়ে এসেছে কেন্দ্রীয় সরকার। কিন্তু তাতেও যে পরিস্থিতির বিশেষ কোনও পরিবর্তন হয়নি সেই বিষয়টাই চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দিল এই ঘটনা।