সংকটে ইয়েস ব্যাঙ্ক। আর সংকট মোচনে একের পর এক পদক্ষেপ নিচ্ছে কেন্দ্রীয় সরকার। গত ৬ মাস ধরে প্রত্যেক দিনই  ইয়েস ব্যাঙ্ক নিয়ে খোঁজ খবর নিচ্ছেন তিনি নিজে। জানিয়েছেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমন। তিনি আরও বলেন রুগ্ন এই ব্যাঙ্কের ৪৯ শতাংশের মালিকানা কিনতে আগ্রহী স্টেট ব্যাঙ্ক। এসবিআই-এর এই পদক্ষেপকে তিনি স্বাগত জানান।   ভারতীয় ব্যাঙ্কিং সিস্টেম এই সময় কিছুটা হলেও সংকটে বলে স্বীকার করে নিয়েছেন নির্মলা। পাশাপাশি তিনি জানিয়েছে পরিস্থিতি মোকাবিলায় যথেষ্ট কড়া পদক্ষেপ নিচ্ছে কেন্দ্রীয় সরকার। 

আরও পড়ুনঃ ইয়েস ব্যাঙ্কের ভরাডুবি আঁচ করতে পেরেই তোলা হয়েছিল ১৩শ কোটি টাকা

সংবাদিক বৈঠকে নির্মলা সীতারমন আবারও  ইয়েস ব্যাঙ্কের কর্মী ও গ্রাহকদের আশ্বাস্ত করেন। তিনি বলেন আগামী এক বছর পর্যন্ত ইয়েস ব্যাঙ্কের কর্মীদের চিন্তার কোনও কারণ নেই। এই সময় তাঁরা তাঁদের বেতন পাবেন। গ্রাহকদের টাকা সুরক্ষিত রয়েছে বলেও আশ্বাস দিয়েছেন নির্মলা। আরবিআই একটি নোটিশ জারি করে টাকা তোলার উর্দ্ধসীমা ৫০ হাজারে বেঁধে দিয়েছে। পাশাপাশি আগামী তেশরা এপ্রিল পর্যন্ত  এই ব্যাঙ্ক কোনও ঋণ দিতে পারবে না বলেও জানিয়েছে।তিরিশ দিনের জন্য এই নির্দেশ কার্যকর থাকছে বলেও জানান হয়েছে।  এই পরিস্থিতিতে যথেষ্টই উদ্বেগে রয়েছেন ব্যাঙ্কের গ্রাহক ও কর্মীরা। 

আরও পড়ুনঃ রাম মন্দির ট্রাস্টে রাখতে হবে দলের সদস্যকে, প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি দিল শিবসেনা

নির্মলা সীতারম আরও বলেন, ইয়েস ব্যাঙ্কের পরিস্থিতি সামলাতে সব রকম পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে। পরিস্থিতির দিকে নজর রাখছে সেবিও। আরবিআই ২০১৭ সাল থেকেই ইয়েস ব্যাঙ্কের দিকে নজর রেখেছে।  বর্তমানে ব্যাঙ্ক পরিচালনার জন্য নতুন সিইও নিয়োগ করা হয়েছে।  ব্যাঙ্কটিকে বাঁচাতে ইতিমধ্যে ব্লু প্রিন্ট তৈরি করেছে আরবিআই। জানিয়েছেন নির্মলা সীতারমন। তবে কী কারণে এই ভরাডুবি তার কারণও খোঁজা হচ্ছে। দোষীদের চিহ্নিত করা হবে বলেও জানিয়েছেন তিনি।