মার্কিন নির্বাচনে জয়ী হওয়ার পর আনুষ্ঠানিকভাবে হোয়াইট হাউসের মসনদে বসা শুধু সময়ের অপেক্ষা জো বাইডেনের। কিন্তু এখনও হার মানতে নারাজ ডোনাল্ড ট্রাম্প। ইতিমধ্যেই নির্বাচনের জালিয়াতির অভিযোগে সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হয়েছিলেন ট্রাম্প। সেখানে অবশ্য নিজের মুখ পুড়েছে প্রাক্তন মার্কিন প্রেসিডেন্টের। নির্বাচনে জালিয়াতির অভিযোগে রাস্তায় মিছিলও করেন ট্রাম্প পন্থীরা। পাল্টা রাস্তায় নামেন টার্মাপ বিরোধীরাও। আর দুই ব়্যালি মুখোমুখি হতেই কার্যত রণক্ষেত্রের চেহারা নেয় ওয়াশিংটনের রাস্তা। 

শনিবার রাতে দফায় দফায় সংঘর্ষ বাঁধে দুই পক্ষের। ট্রাম্প বিরোধী ও ট্রাম্প পন্থীদের সংঘর্ষে উত্তপ্ত হয়ে ওঠে গোটা এলাকা। দু-পক্ষের সংঘর্ষের এক জন গুলিবিদ্ধ ও ৪ জন ছুরিকাহত হয়েছেন। কার্যত রণক্ষেত্রের চেহারা নেয় গোটা এলাকা। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে রাস্তায় নামে বিশাল পুলিস বাহিনি। লাঠি চার্জও করতে পুলিসকে। ঘটনায় ইতিমধ্যেই ২৫ জনকে গ্রেফতার কেরছে পুলিস। দীর্ঘক্ষণের চেষ্টায় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসে। তবে উত্তেজনা রয়েছে মার্কিন মুলুকে।

ঘটনা প্রসঙ্গে প্রশাসনের তরফ থেকে বিবৃতিও জারি করা হয়েছে। সোশ্য়াল মিডিয়ায় ওয়াশিংটন পুলিসের তরফে জানানো হয়েছে,'ওলিম্পিয়া বিল্ডিংয়ের কাছে অশান্তির জেরে একজন গুলিবিদ্ধ হয়েছেন। গুরুতর জখম অবস্থায় হাসপাতালে চিকিৎসাধীন তিনি। ঘটনাস্থল থেকে এক সন্দেহভাজনকে আটক করে পুলিশ। পরে জখম নিয়ে হাসপাতালে আরও চারজন ভরতি হন বলে খবর। তাঁদেরও আঘাত গুরুতর। আহতরা কোন পক্ষের নাকি নিছকই পথচারী, তা এখনও বিস্তারিত জানা যায়নি।' ফলে নির্বাচনে হারের পরেও ট্রাম্পের নাছোর মনোভাবের কারণে নির্বাচন পরবর্তী সন্ত্রাসে রক্তাক্ত হোয়াইট হাউসের রাজনীতি।