বিশ্বের জনসংখ্যার মাত্র ০.১ শতাংশ মানুষ ২০১৯ সালে সম্মিলিত ভাবে ২৫ শতাংশ সম্পত্তির বৃদ্ধি ঘটিয়েছেন। এই দুনিয়ার প্রথম ৫০০ জন ধনীর সম্পত্তি বেড়ে হয়েছে ১.২ ট্রিলিয়ন ডলার। বছরশেষে ব্লুমবার্গ রিপোর্টে উঠে এল এমন চাঞ্চল্যকর তথ্যই। ১৯২৯ সালের পর এই প্রথম এতটা সম্পত্তির বৃদ্ধি ঘটল বিশ্বের প্রথম ৫০০ জন বিত্তবান মানুষের। 

চলতি বছর  সবচেয়ে তরুণ ধনকুবের হিসাবে উঠে এলেছে  মার্কিন নাগরিক কেলি জেনারের নাম। সম্প্রতি তাঁর সংস্থা কেলি কসমেটিক চুক্তি স্বাক্ষার করেছে আল্টা বিউটি ইঙ্কের সঙ্গে। 

সমীক্ষা বলছে চলতি বছরের শুরুতে বিশ্বের প্রথম ৫০০ জন ধনকুবেরের সম্পত্তি যা ছিল তার থেকে ১.২ ট্রিলিয়ান ডলার তা বৃদ্ধি পেয়েছে। ফলে বছর শেষে সম্মিলিত ভাবে সম্পত্তির পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ৫.৯ ট্রিলিয়ন ডলার। ফলে বিশ্বের মোট সম্পত্তির ২৫ শতাংশই কুক্ষিগত রয়েছে ০.১ শতাংশ মানুষের হাতে। 

তবে এর মধ্যেও রয়েছে ছন্দপতন। অ্যামাজনের প্রতিষ্ঠাতা জেজ বেজোসের সম্পত্তির পরিনাণ কমেছে  ৯ বিলিয়ন ডলার।  ব্লুবার্গের প্রথম ৫০০ জন ধনীর তালিকায় ১৭২ জন আমেরিকান। এরমধ্যে ফেসবুকের প্রধান মার্ক জুকারবার্গের সম্পত্তি বেড়েছে ২৭.৩ বিলিয়ন ডলার। মাইক্রোসফটের প্রধান বিল গেটসের সম্পত্তি বেড়েছে ২২.৭ বিলিয়ন ডলার।

ধনকুবেরের  তালিকায় চিনের প্রতিনিধি রয়েছেন ৫৪ জন। রাশিয়ার ধনকুবেরদের সম্পত্তির পরিমাণ বেড়েছে ২১ শতাংশ।