শুধুই বাদুড় বীভিষিকা নয়। করোনাভাইরাসের উৎস রয়েছে উহান শহরের সি ফুড মার্কেটে বিক্রি হওয়া মাংসের মধ্য়েও। সম্প্রতি ল্য়ানসেট জার্নালে প্রকাশিত একটি নিবন্ধে এমনটাই দাবি করা হচ্ছে। শানডং অ্য়াকাডেমি অব মেডিকেল সায়েন্সের গবেষক-সব অন্য়ান্য় চিকিৎসকরাও একটি নিবন্ধে দাবি করেছেন, করোনাভাইরাসটি বাদুড় থেকে আসা সার্সের সঙ্গে সম্পর্কযুক্ত। যদিও সেইসঙ্গে উহানের সি-ফুড মার্কেটে বিক্রি হওয়া এক ধরনের প্রাণীর মাংসও কিন্তু একটি মধ্য়স্থতাকারী জীবাণু।

প্রসঙ্গত, করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে চিনে মৃতের সংখ্য়া ১৩০ ছাড়িয়েছে। উহান শহর এখন কার্যত তালাবন্দি। এমতাবস্থায়, চিনের প্রেসিডেন্ট শিংফিংয়ের সঙ্গে বেজিঙে বৈঠকে বসেন বিশ্ব স্বাস্থ্য় সংস্থার প্রধান ট্রেডোস অ্য়াডহ্য়ানোম গ্য়াব্রিসেসাস। শিংফিং বলেছেন, "এই ভাইরাস আসলে দৈত্য়াকার। এর সঙ্গে লড়াই করছেন চিনের মানুষ। বিশ্বের থেকে  এই দৈত্য়কে লুকনোর ক্ষমতা নেই আমাদের।"

এদিকে কেউ কেউ বলছেন, চিন আসলে রাসায়নিক অস্ত্র তৈরি করছিল।  মনে করা হচ্ছে, নোভেল করোনাবভাইরাসের চাষ করেছে চিন জৈব রাসায়নিক অস্ত্র বানানোর জন্য়। ইজরায়েলের গোয়েন্দা সংস্থা মোসাদ এমনটাই সন্দেহ করেছে। এই দাবিকে সমর্থন করেছে ওয়াশিংটন পোস্ট।

এদিকে চিনের উহান থেকে ফিরে আসা এক ভারতীয় পড়ুয়ার শরীরে করোনাভাইরাস পাওয়া গিয়েছে কেরলে।