গোটা চিন জুড়ে দ্রুত বেড়ে চলেছে করোনা ভাইরাসের আতঙ্ক। লাফিয়ে বাড়ছে মৃতের সংখ্যা। এখনো পর্যন্ত সরকারি ভাবে মৃতের সংখ্যা ৮০ ছুঁয়েছে।  হুবেই প্রদেশে নতুন করে আরও ২৪ জনের আক্রান্তের খবর পাওয়া গেছে। দেশ জুড়ে সরকারি ভাবে আক্রান্তের সংখ্যা ২,৭৪৪। 

 

 

গত ডিসেম্বরে চিনের উহান শহরে প্রথম করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব ঘটে। তারপর থেকেই চিনের বিভিন্ন শহরে এই ভাইরাস ছড়িয়ে পড়েছে। হুবেই প্রদেশের বাইরে করোনায় মৃত্যুর খবর আসছে। নতুন করে আক্রান্ত হওয়া ৭৬৯ জনের মধ্যে অর্দ্ধেকই হুবেই প্রদেশএর বাসিন্দা বলে জানা যাচ্ছে। জাতীয় স্বাস্থ্য কমিশন জানাচ্ছে এদের মধ্যে ৪৬১ জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। 

আরও পড়ুন: ক্লাসরুমে চুম্বনে মত্ত দ্বাদশ শ্রেণির দুই পড়ুয়া, ভিডিও ভাইরাল হতেই তদন্তের নির্দেশ

এই পরিস্থিতিতেই হুবেই ভ্রমণের উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। রাশ টানা হয়েছে  গণ পরিবহন ব্যবস্থা, অন্তর্দেশীয় বিমান চলাচল ও রেল পরিষেবায়। 
 এদিকে দেশজুড়ে করোনা ভাইরাসের প্রকোপ ঠেকাতে বন্যপ্রাণী কেনাবেচায় নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে চিন। কৃষি মন্ত্রক ও বন্যপ্রাণী বিষয়ক সংস্থা যৌথ বিবৃতিতে জানিয়েছে, চিনের সমস্ত বাজার, সুপার মার্কেট, রোস্তোরাঁ এবং ই-কমার্স সাইট গুলিতে বন্যপ্রাণী কেনাবেচা সম্পূ্র্ণ রূপে নিষিদ্ধ করা হচ্ছে। 

 

আরও পড়ুন: বাগদাদের মার্কিন দূতাবাসে ফের হামলা, ক্যাফেটেরিয়ায় এসে পড়ল রকেট

সরকারি ভাবে যে আক্রান্তের সংখ্যা বলা হচ্ছে প্রকৃতপক্ষে আক্রান্তের সংখ্যা তার চেয়ে কয়েক গুণ বেশি বলে  দাবি উঠছে। অসমর্থিত সূত্রের খবর, চিনে এক লাখ মানুষ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত। চিবনে প্রাদুর্ভাব ঘটলেও বর্তমানে অস্ট্রেলিয়া, নেপাল, মালয়েশিয়া, ভিয়েতনাম, সিঙ্গাপুর, জাপান, দক্ষিণ কোরিয়া, তাইওয়ান, থআইল্যান্ড, ফ্রান্স ও আমেরিকাতেও  এই ভাইরাসে আক্রান্তের খোঁজ মিলেছে।