ইরাকের রাজধানী বাগদাদের মার্কিন দূতাবাসে ফের রকেট হামলা। দূতাবাস লক্ষ্য করে উড়ে এল পরপর তিনটি রকেট। রাতের অন্ধকারে এরমধ্যে একটি রকেট দূতাবাসের ক্যাফেটেরিয়ায় এসে পড়ে। এছাড়াও বাকি দুটি রকেট দূতাবাসের খুব কাছেই  পড়েছে।

রকেট হামলায় এখবনও পর্যন্ত তিন জনের আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। এদের মধ্যে রয়েছেন মার্কিন দূতাবাসের কর্মীও। গত কয়েক বছরের মধ্যে এই প্রথম রকেট  হামলায় কোনও মার্কিন দূতাবাস কর্মী আহত হলেন। এখনও পর্যন্ত হামলার দায় স্বীকার করেনি কোনও পক্ষ।

আরও পড়ুন: চিনে করোনায় মৃতের সংখ্যা ছাড়াল ৮০ , সরকারি ভাবে আক্রান্ত ২,৭০০

গত ৩ জানুয়ারি বাগদাদ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ড্রোন হামলা চালিয়ে ইরানের রেভেলিউশনারি গার্ডের প্রধান জেনারেল সোলেমানিকে হত্যা করে আমেরিকা। সোলেমানির মৃত্যুর পর থেকেই উত্তপ্ত রয়েছে ইরানের সঙ্গে মার্কিন কূটনৈতিক সম্পর্ক। বারবার সংঘাতের খবর পাওয়া যাচ্ছে। এই ঘটনার পর একাধিকবার বাগদাদের গ্রিন জোনে মার্কিন দূতাবাস লক্ষ্য করে একাধিকবার রকেট হামলা চালান হয়েছে। মার্কিন বিমান ঘাঁটি লক্ষ্য করেও ছোড়া হয়েছে রকেট। 

আরও পড়ুন: ক্লাসরুমে চুম্বনে মত্ত দ্বাদশ শ্রেণির দুই পড়ুয়া, ভিডিও ভাইরাল হতেই তদন্তের নির্দেশ

রবিবার রাতে মার্কিন দূতাবাস লক্ষ্য করে এই হামলার কড়া নিন্দা করেছেন ইরাকি প্রধানমন্ত্রী আদেল আব্দুল মাহদি। তবে এদিন ইরাকের রাজধানীতে রকেট হামলার জন্য তেহরানকে সরাসরি দোষ দেয়নি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। তবে পেন্টাগনের তরফে ইরান সমর্থিত বিক্ষোভকারীদের হামলার বিষয়টি উল্লেখ করা হয়েছে। সাম্প্রতিক কালে ইরাকে প্রভাবশালী শিয়া নেতা মোক্তাদা আল-সদর দেশে যুক্তরাষ্ট্রবিরোধী বিক্ষোভের নেতৃত্ব দিচ্ছেন। তাদের দাবি মার্কিন বাহিনীকে ইরাক ছাড়তে হবে।