ভারতে উন্নয়নের সমস্ত কর্মসূচির ক্ষেত্রে একেবারে কেন্দ্রে রয়েছে লিঙ্গ সমতা এবং মহিলা ক্ষমতায়ন। বৃহস্পতিবার এমনটাই দাবি করলেন কেন্দ্রীয় নারী ও শিশু উন্নয়ন মন্ত্রী স্মৃতি ইরানি। হাথরসের গণধর্ষণের অভিযোগ নিয়ে গোটা দেশ যখন ক্ষোভে ফুটছে সেই সময়ই, এদিন রাষ্ট্রসংঘে নারী বিষয়ক চতুর্থ বিশ্ব সম্মেলনের ২৫তম বার্ষিকী উপলক্ষ্যে আয়োজিত এক বৈঠকে অংশ নিয়েছিলেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী।

নিউ নর্মালের নিয়ম মেনে এই বৈঠকও হয় ভার্চুয়াল, অর্থাৎ ভিডিও কনফারেন্সে। এই উচ্চ-স্তরের বৈঠকে অংশ নিয়ে কেন্দ্রীয় নারী ও শিশু উন্নয়ন মন্ত্রী স্মৃতি ইরানি বললেন, ভারত বর্তমানে নারীদের উন্নয়নের পথ থেকে সরে নারীদের নেতৃত্বে উন্নয়নের পথে চলে এসেছে। প্রসঙ্গত এর আগে রাষ্ট্রসংঘে তাঁর মন্ত্রিসভার দুই বড় পদে, প্রয়াত কেন্দ্রীয় মন্ত্রী সুষমা স্বরাজ ও নির্মলা সীতারমণের থাকার উল্লেখ করে ভারতের নারীদের নেতৃত্বে উন্নয়নের পথে চলার কথা বলেছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।  

এদিনের বৈঠকে স্মৃতি ইরানি আরও বলেন, ভারত বর্তমানে জীবনের সকল ক্ষেত্রে লিঙ্গ সমতা নিশ্চিত করা এবং সকল প্রকারের লিঙ্গ-ভিত্তিক বৈষম্যের অবসান ঘটানোকেই সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার দিচ্ছে। তিনি জানান, কোভিড মহামারি চলাকালীনও মহিলাদের নিরাপত্তা এবং সুস্বাস্থ্য নিশ্চিত করতে ভারত সরকার একাধিক ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে। চিকিত্সা-সহ মনস্তাত্ত্বিক, আইনি, পুলিশি সহায়তা, আশ্রয় - মহিলাদের প্রযোজনীয় সকল পরিষেবাকে এক ছাদের নীচে এনে ভারত সরকার একটি সংকটমোচন কেন্দ্র তৈরি করেছে।