কথায় আছে রজ্জুতে সর্পভ্রম। অর্থাৎ দড়ি দেখে সাপ বলে ভুল করা। অস্ট্রেলিয়ার কুইন্সল্যান্ডে প্রায় সেই দশাই হল ভারতের চন্দ্রযান ২-এর। অনেকেই চন্দ্রযান দেখে ইউএফও বা 'আন আইডেন্টিফায়েড ফ্লাইং অবজেক্ট' ভেবে বসলেন। কেউ কেউ আবার ভিনগ্রহীদের আগমন ঘটছে আশঙ্কায় নিজেদের খেলনা বন্দুক থেকেই গুলি ছুড়লেন চন্দ্রযান ২'কে লক্ষ্য করে।

ভারত থেকে চন্দ্রযান ২ যাত্রা শুরু করেছিল সোমবার দুপুর ২টো বেজে ৪৩ মিনিটে। সেই সময় অস্ট্রেলিয়ার সময় ছিল সন্ধ্যা সাড়ে সাতটা। চন্দ্রযান ২ উড়ে যায় অস্ট্রেলিয়ার উত্ত অংশের কুইন্সল্যান্ড রাজ্যের উপর দিয়ে। ফলে সেখানকার বাসিন্দারা হঠাত দেখতে পান তাঁদের আকাশে এক আশ্চর্যজনক আলোকিত বস্তু উড়ে যাচ্ছে। ধূমকেতুর মতো তার পিছনে আলোর লেজ-ও রয়েছে, কিন্তু বস্তুটি ধূমকেতুর মতো দ্রুতগামী নয়। আর এতেই তাঁরা ধরে নেন নিশ্চিতভাবে এটি ইউএফও।

 কুউন্সল্যান্ডের ম্যাকিনলে শায়ার-এর কাউন্সিলর শওনা রয়েস জানিয়েছেন, সেই সময তাঁরা এক অলাভজনক সংস্থার দেওয়া নৈশভোজে অংশ নিতে ক্যারাভ্যান পার্কে উপস্থিত ছিলেন। প্রায় ১৬০ জন অতিথি ছিলেন সেখানে। তাদের মধ্যে একজনের চোখেই প্রথম ধরা পড়ে আকাশে ওই উজ্জ্বল বস্তুর উপস্থিতি। তিনিই বাকিদের ওই দৃশ্য দেখান।

রয়েস জানিয়েছেন, ওই অদ্ভূত বস্তুটি আসলে কী সেই নিয়ে আলোচনা শুরু হয়ে গিয়েছিল সেখানে। বস্তুটিু উত্তর-পূর্ব দিকে উড়ে যাচ্ছিল। দুই থেকে তিন মিনিট দৃশ্যমান ছিল, তারপর ধীরে ধীরে আকাশে মিলিয়ে যায়। বস্তুটির ভিডিও তুলে তিনি অস্ট্রেলিয়ার এক সংবাদ মাধ্য়মের ফেসবুক পেজে আপলোড করে রয়েস জানতে চান, বস্তুটি কী?

এক অস্ট্রেলিয় বিজ্ঞানী জন্টি হর্নার সেখানে বিশষয়টি বাকিদের কোলসা করে জানান। তিনিই বলেন, এটি নিশ্চিতভাবে ভারতের চন্দ্রাযান। তবে ততক্ষণে সোশ্যাল মিডিয়ায় ভিডিওটি ইউএফও হিসেবেই ছড়িয়ে প়ড়েছে। শেয়ারের পর শেয়ার হয়েছে। জেকব ব্লান্ট নামেবএক ব্যক্তি জানান, তিনি ভেবেছিলেন এটি উইএফও। তাই তিনি তাঁর নার্ফগান বা খেলনা বন্দুক দিয়ে বস্তুটি লক্ষ্য করে গুলিও ছোড়েন।