আর মাত্র আট বছর বছর। তার পরেই জনসংখ্যার নিরিখে চিনকে টপকে এক নম্বরে চলে যেতে পারে ভারত। রাষ্ট্র সংঘের সাম্প্রতিক এক রিপোর্টে এমনই দাবি করা হয়েছে। 

ওই রিপোর্টে যে তথ্য উঠে এসেছে, তাতে বাড়তে থাকা জনসংখ্যা নিয়ে ভারতের উ্দ্বেগ বাড়তে বাধ্য। বলা হচ্ছে, ২০১৯ থেকে ২০৫০ সালের মধ্যে ভারতের জনসংখ্যা আরও ২৭ কোটি ৩০ লক্ষ বাড়তে পারে। ভারতের সঙ্গেই পাল্লা দিয়ে বাড়তে পারে নাইজেরিয়ার জনসংখ্যাও। আফ্রিকার দেশটিতে আগামী ৩১ বছরে জনসংখ্যা বাড়তে পারে ২০০ কোটি। ২০৫০ সালে বিশ্বের মোট জনসংখ্যার ২৩ শতাংশই হবে ভারত এবং নাইজেরিয়া থেকে। 

তবে বাড়তে থাকা জনসংখ্যায় যে ভারত কিছুটা লাগাম টানতে পেরেছে, তাও এই রিপোর্টে প্রমাণিত। রাষ্ট্রপুষঞ্জের আগের বারের রিপোর্টে দাবি করা হয়েছিল, ২০২২ সালেই চিনকে টপকে যাবে ভারত। তবে এবারের রিপোর্টে দাবি করা হচ্ছে, প্রতিবেশী দেশকে টপকে যেতে ভারতের আরও আট বছর সময় লাগবে। 

চিনের বর্তমান জনসংখ্যা ১৩৭ কোটি, আর ভারতের ১৪০ কোটি। বিশ্বের জনসংখ্যার মোট ১৯ এবং ১৮ শতাংশ মানুষই রয়েছে এই দুই দেশে। আর তিন নম্বর স্থানে রয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। 

আগামী তিরিশ বছরে বিশ্বের মোট জনসংখ্যা আরও ২০০ কোটি বাড়বে বলে জানানো হয়েছে। এর ফলে বিশ্বের জনসংখ্যা বর্তমানে ৭৭০ কোটি থেকে বেড়ে তিরিশ বছর বাদে হতে পারে ৯৭০ কোটি।