করোনা ভাইরাসের সঙ্গে লড়াইয়ে কার্যত পরাজিত ইউরোপ। গত শনিবার পর্যন্ত গোটা বিশ্বে কোভিড-১৯ ভাইরাসে মৃত্যু হয়েছে ১২ হাজার মানুষের। যাদ্যের মধ্যে ৬ হাজার কেবল ইউরোপের। আর এদের মধ্যে সিংহভাগই ইতালির। কোনও ভাবেই পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনা যাচ্ছে না দেশটির। গত ৪ সপ্তাহ ধরে করোনা ইতালিতে মহামারীর রূপ নিয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়েছে ৭৯৩ জনেরও বেশি মানুষের। এটাই এখনও পর্যন্ত বিশ্বে একদিনে কোনও দেশে সবচেয়ে বেশি মৃত্যুর ঘটনা করোনা আক্রান্ত হয়ে।

ইতালিতে করোনা সংক্রমণে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৪,৮২৫। দেশটিতে বর্তমানে আক্রান্তের সংখ্যা ৫৩,৫৭৮। গত ২৪ ঘণ্টায় ইতালিতে আক্রান্তের সংখ্যা বৃদ্ধি পেয়েছে ১৩.৯ শতাংশ। সবচেয়ে খারাপ পরিস্থিতি উত্তর ইতালির লম্বার্ডিতে। এখানে এখনও পর্যন্ত মৃত্যু হয়েছে ৩,০৯৫ জনের। আর আক্রান্তের সংখ্যা ২৫ হাজারের বেশি। শনিবার পর্যন্ত দেশটিতে সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৬,০৭২ জন। 

করোনার জেরে লকডাউনের পথে পাকিস্তানও, বন্ধ হল আন্তর্জাতিক বিমান চলাচল

করোনায় জোড়া মৃত্যু, মুম্বইয়ের প্রৌঢ়ের সঙ্গে হেরে গেলেন বিহারের ৩৮ বছরের যুবকও

করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে মোদীর আহ্বানে সাড়া , জনতা ফারফিউতে কার্যত স্তব্ধ তিলোত্তমা

অনেক আগেই মৃতের সংখ্যায় চিনকে ছাড়িয়ে গিয়েছে ইতালি। খুব শীঘ্রই সংখ্যাটা ৫ হাজারে পৌঁছে যাবে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। ইতালির হাসপাতালগুলিতে এই বেশি পরিমাণে মরদেহ রয়েছে যে পরিস্থিতি মোকাবিলায় নামতে হয়েছে সেনাকে। ইতালির মিলানের নিকটবর্তী বেরগামোর শহরে সারি সারি সেনার ট্রাকে করে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে মহামারিতে মৃতদের দেহ। 

 

 

স্পেনেও পরিস্থিতি ক্রমে ভয়াবহ দিকে এগোচ্ছে। এখনও পর্যন্ত এই দেশে করোনার বলি ১.৩০০ জন। অন্যদিকে করোনা সংক্রমণে বিপর্যস্ত আরও একটি দেশ ইরানে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১,৫০০। বলিভিয়ায় করোনা প্রাদুর্ভাবের কারণে পিছিয়ে দিতে হয়েছে প্রেসিডেন্ট নির্বাচন।