Asianet News Bangla

করোনায় মৃত বোনের মরদেহর সঙ্গে একঘরে আটকে দাদা, কাতর আর্তি ফেসবুক লাইভে

  • করোনা আক্রান্ত্র হয়ে মৃত্যু হয়েছে বোন টেরেসার
  • মৃত বোনের শেষকৃত্য করার অবস্থা নেই দাদা লুকার
  • করোনা আক্রান্তে প্রায় শ্মশানপুরি তে পরিনত হয়েছে গোটা এলাকা
  • বাসিন্দারা প্রত্যেকেই ঘরবন্দী
Italy Man trapped with corona infected sister's Dead body
Author
Kolkata, First Published Mar 15, 2020, 3:48 PM IST
  • Facebook
  • Twitter
  • Whatsapp

ঘটনাটি ঘটেছে ইতালিতে। করোনা আক্রান্ত্র হয়ে মৃত্যু হয়েছে বোন টেরেসার। দেশের পরিস্থিতি এতটাই খারাপ, যে করোনা আক্রান্তে মৃত বোনের শেষকৃত্য করার অবস্থা নেই। তাই বোনের শেষকৃত্য করার আর্তি জানিয়ে ফেসবুক লাইভে কান্নায় ভেঙ্গে পড়ল দাদা লুকা। জানা গিয়েছে, ইতালির নেপলসের বাসিন্দা এই পরিবার। বর্তমানে করোনা আক্রান্তে প্রায় শ্মশানপুরি তে পরিনত হয়েছে গোটা এলাকা। বাসিন্দারা প্রত্যেকেই ঘরবন্দী। কারণ এই এলাকায় দ্রুত মৃত্যুর হার বৃদ্ধি পেয়েছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা।

আরও পড়ুন- করোনা আতঙ্কের জেড়, ট্রেনের এসি কোচে কম্বল দেওয়া বন্ধ করল রেল

এমন এক দুর্বিসহ অবস্থায় বোনের মৃতদেহ আগলে কাতর আর্তি দাদার। বাড়ির বাইরে বেরোতে পারছেন না তিনি। ফলে বোনের শেষকৃত্য করার জো নেই। হেল্পলাইনে ফোন করেও কোনও সাহায্য পাননি তিনি। কারণ মারণ ভাইরাসের জেরে আপাতত সে দেশে বন্ধ রাখা হয়েছে সমস্ত পরিষেবা। তাই কোনও সুরাহা না পেয়ে ফেসবুকে কাতর আর্তি। ভিডিওতেই দেখা যাচ্ছে ঘরের ভিতরে খাটের উপরে পড়ে রয়েছে বোন টেরেসার মৃতদেহ।  লুকা নিজেও করোনা আক্রান্ত সেই কারণে নিজেও তিনি রয়েছেন আইসোলেশনে। 

আরও পড়ুন- করোনার তথ্য গোপন করে বিপাকে মহিলা, এফআইআর দায়ের আগ্রায়

এই ফেসবুক লাইভের ফলে তিনি বোনের মৃত্যু ও দেশের পরিস্থিতির কথাও জানিয়েছেন। আর এর ফলে লাইভের ৩৬ ঘন্টা পরেই বোন টেরেসার মৃতদেহ নিয়ে যাওয়া হয় প্রশাসনের তরফ থেকে। তবে বোনের মৃতদেহ নিয়ে কি করা হয়েছে তা কিছুই জানেন না লুকা। কারণ করোনা আক্রান্ত হওয়ার কারণে তিনি নিজে গৃহবন্দী। এই মুহূর্তে ইতালিতে প্রায় ১২ হাজার মানুষ করোনায় আক্রান্ত। মৃত্যু হয়েছে প্রায় ৮০০ মানুষের।

Follow Us:
Download App:
  • android
  • ios