আচমকাই বিমানের মধ্যেই মৃত্যুর কোলে ঢোলে পড়েন এক ব্যক্তি। চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, অতিরিক্ত মাদক সেবনের ফলেই মৃত্যু হয়েছে তার। কিন্তু বিমানের মধ্যে ওই ব্যক্তি কীভাবে পেলেন মাদক? আর কীভাবেই বা মৃত্যু হল তার? -উঠছে একাধিক প্রশ্ন।

পুলিশের প্রাথমিক তদন্তের পর জানা গিয়েছে, মৃত ওই যাত্রীর নাম উডো এন। তিনি জাপানের বাসিন্দা। পুলিশ সূত্রের খবর, বিমানে কলম্বিয়া যাচ্ছিলেন তিনি। মেক্সিকো থেকে বিমান ওড়া শুরু করতেই খবর আসে শারিরীক অবস্থার ক্রমশই অবণতি হচ্ছে তাঁর। তরিঘরি বিমানটিকে পুনরায় মেক্সিকো সিটিতে নামিয়ে আনা হয়। ১৯৮ জন যাত্রী বোঝাই বিমানটি ফিরে আসে মেক্সিকোতে। 

কিন্তু ঠিক কী কারণে মৃত্যু হয় ওই ব্যক্তির, তা প্রয়োজনীয় পরীক্ষা-নিরীক্ষা না করে বলতে পারছিলেন না চিকিৎসকরা। অবশেষে, প্রয়োজনীয় পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর পরিষ্কার হয় তার মৃত্যুর কারণ। জানা গিয়েছে, তাঁর পেটের ভেতর থেকে উদ্ধার করা হয়েছে ২.৫ সেন্টিমিটার লম্বা ও ১ সেন্টিমিটার দৈর্ঘ্য বিশিষ্ট ২৪৬টি কোকেনের প্যাকেট। নিরাপত্তারক্ষীর হাত থেকে বাঁচতে ২৪৬টি কোকেনের প্যাকেট গিলে ফেলেন তিনি। যার ফলে অতিরিক্ত মাদক সেবনের ফলে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয় তার।