Asianet News BanglaAsianet News Bangla

Omicron: একঘরে দক্ষিণ আফ্রিকা, ওমিক্রন আতঙ্কে কাঁপছে গোটা বিশ্ব

আতঙ্ক বাড়াচ্ছে করোনা ভাইরাসের (Coronavirus) নতুন স্ট্রেন  ওমিক্রন (Omicron)। দক্ষিণ আফ্রিকায় (South Africa) এই আবিষ্কার এই নতুন প্রজাতির। যার ফলে দক্ষিণ আফ্রিকার সঙ্গে বিমান  বাতিল করল একাধিক দেশ।
 

Many countries cancel flights with South Africa for Covid 19 new variant Omicron spb
Author
Kolkata, First Published Nov 28, 2021, 1:56 AM IST
  • Facebook
  • Twitter
  • Whatsapp

বিশ্ব জুড়ে ক্রমেই আতঙ্ক বাড়াচ্ছে করোনা ভাইরাসের  (Coronavirus) নতুন ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রন (Omicron)। দক্ষিণ আফ্রিকায়  (South Africa)প্রথম আবিষ্কার হওয়ায় এই নতুন  রূপ সবথেকে বেশি ভয়ঙ্কর হতে পারে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য় সংস্থা (WHO)। দক্ষিণ আফ্রিকায় প্রথম পাওয়া গেলেও ইতিমধ্যেই একাধিক দেশে করোনা আক্রান্তের শরীরে হদিশ মিলেছে এই নতুন প্রজাতির। বেলজিয়াম, বতসোয়ানা, ইজরায়েল , হংকং ও ব্রিটেনেও হদিশ মিলেছে নতুন স্ট্রেনের। জানা গিয়েছে টিকাপ্রাপ্ত বয়স্করা এই ভাইরাস প্রজাতিতে বেশি আক্রান্ত হয়েছেন। এই ভেরিয়েন্টকে উদ্বেগজনক বলার কারণ, এটির বিপজ্জনক মিউটেশন ঘটে চলেছে এখনও। বিজ্ঞানীরা জানাচ্ছেন ইতিমধ্যেই ৫০ বার জিনগত পরিবর্তন (Mutation) ঘটেছে৷ এর মধ্যে স্পাইক প্রোটিনে বদল হয়েছে প্রায় ৩০ বার৷ এই ভ্যারিয়েন্ট নিয়ে ইতিমধ্যেই জোর কদমে শুরু হয়েছে গবেষণা। ইতিমধ্যেই দক্ষিণ আফ্রিকা ও তার পার্শ্ববর্তী দেশগুলির সঙ্গে উ়ড়ান বাতিল করেছে একাধিক দেশ। সময় যতই এগোচ্ছে ততই একের পর এক দেশ একঘরে করে দিচ্ছে দক্ষিণ আফ্রিকাকে। যার ফলে সমস্যায় পড়ছে বহুমানুষ।

দক্ষিণ আফ্রিকার সঙ্গে উড়ান সহ নানা বিষয়ে ইতিমধ্যেই দূরত্ব লাগু করেছে অস্ট্রেলিয়া (Australia), ব্রাজিল (Brazil), কানাডা (Canada), ইরান (Iran), জাপান(Japan), থাইল্যান্ড (Thailand), আমেরিকা (America), সহ ইউরোপিয়ান ও ইউনাইটেড কিংডমের দেশগুলিও নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে দক্ষিণ আফ্রিকান নানা দেশের সঙ্গে। উড়ান বন্ধ করলেও ইতিমধ্য়েই যেহেতু একাধিক দেশে ওমিক্রনের হদিশ  মিলেছে তা আতঙ্ক আরও  বাড়িয়েছে। ইতিমদধ্য়েই দক্ষিণ আফ্রিকার উড়ান বন্ধ করার সিদ্ধান্ত নেওয়ার আগে নেদারল্যান্ডে দক্ষিণ আফ্রিকার কেপটাউন  ও জোহানেসবার্গ থেকে আশা দুটি প্লেনে মোট ৬১ জনের কোভিড  রিপোর্ট পজেটিভ এসছে। যাদের তড়িঘড়ি আইসোলেশনে পাঠানো হয়েছে। একইসঙ্গে তাদের নুমনা আরও পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়েছে তা কেউ ওমিক্রন ভ্যারিয়েন্টে আক্রান্ত কিনা। একইসঙ্গে অন্য দেশ থেকে আসা ৫৩৯ যাত্রীর রিপোর্ট নেগেটিভ আসায় তাদের বাড়ি যাওয়ার অনুমতি দেওয়া হয়েছে। জার্মানির স্বাস্থ্য আধিকারিকরাও আশঙ্কা প্রকাশ করেছে  তাদের দেশেওকরোনার তুন প্রজাতি হয়তো এসে গিয়েছে।

নড়েচড়ে বসেছে ভারতও। পরিস্থিতি মোকাবিলায় তড়িঘড়ি  নানা ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে আগত সকল  ব্যক্তিদের পরীক্ষা ও কেউ পজেটিভ আসলে তৎক্ষণাত তাকে কোয়ারেন্টাইনে পাঠানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে। শনিবার ভারতের করোনাভাইরাস (Coronavirus) পরিস্থিতি ও নতুন স্ট্রেইন ওমিক্রন (Omicron) নিয়ে শীর্ষ সরকারী কর্মকর্তাদের সঙ্গে একটি বৈঠকও করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী (NarendraModi)। একইসঙ্গে রাজ্যগুলিও ওমিক্রন মোকাবিলায় নিজেদের মত করে কেন্দ্রীয় নির্দেশিকা মেনে ব্যবস্থা নিতে শুরু করেছে। সব মিলিয়ে করোনার নতুন প্রজাতির আতঙ্কে কাঁপছে গোটি বিশ্ব। 

Follow Us:
Download App:
  • android
  • ios