জম্মু কাশ্মীরে ৩৭০ ধারা প্রত্যাহার এবং কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল হিসেবে ঘোষণা করার প্রস্তাবের তীব্র প্রতিক্রিয়া দিল পাকিস্তান। ইসলামাবাদের অভিযোগ, ভারতের এই একতরফা সিদ্ধান্ত রাষ্ট্রসঙ্ঘের প্রস্তাবের বিরোধী। বিষয়টি নিয়ে আন্তর্জাতিক স্তরে দরবার করার ইঙ্গিতও দিয়েছে পাকিস্তান। 

কাশ্মীর নিয়ে ভারত সরকারের ঘোষণার পরই এ দিন বিবৃতি জারি করেছে পাক বিদেশ মন্ত্রক। সেখানে কাশ্মীরকে আন্তর্জাতিক সমস্যা বলে উল্লেখ করে নিজেদের সেই সমস্যার অংশ বলে দাবি করেছে পাক সরকার। ভারতের পদক্ষেপকে বেআইনি বলে দাবি করে তার বিরুদ্ধে সম্ভাব্য সব পদক্ষেপই করা হবে বলে জানানো হয়েছে। 

আরও পড়ুন- জম্মু কাশ্মীর থেকে বিচ্ছিন্ন হবে লাদাখ, দুই পৃথক কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলের প্রস্তাব

আরও পড়ুন- কাশ্মীর মডেলেই অন্য রাজ্যকেও টুকরো করতে পারে মোদী সরকার, আশঙ্কা চিদম্বরমের

বিবৃতিতে পাকিস্তান বলেছে, 'ভারত অধিকৃত কাশ্মীর নিয়ে ভারত সরকার যে ঘোষণা করেছে, তার কঠোর নিন্দা করছে পাকিস্তান। পাশাপাশি এই সিদ্ধান্তকে খারিজ করা হচ্ছে। মনে রাখতে হব, কাশ্মীর নিয়ে বিবাদ আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃত। ভারতের তরফে কোনও একতরফা সিদ্ধান্ত কাশ্মীর সমস্যার চরিত্র বদল করতে পারে না। কারণ তা রাষ্ট্রসঙ্ঘের প্রস্তাবের পরিপন্থী। অধিকৃত কাশ্মীরের মানুষের ব্যক্তি স্বাধীনতার অধিকার ফিরিয়ে দিতে তাঁদের রাজনৈতিক, কুটনৈতিক এবং নৈতিক সমর্থন দিতে পাকিস্তান বদ্ধপরিকর।'

কুটনৈতিক বিশেষজ্ঞদের ধারণা, ভারতের এই পদক্ষেপের বিরুদ্ধে সেপ্টেম্বরে রাষ্ট্রসঙ্ঘের সাধারণ সভায় সরব হতে পারে পাকিস্তান। আগামী ২৮ সেপ্টেম্বর রাষ্ট্রসঙ্ঘের সাধারণ সভায় বক্তব্য রাখার কথা ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীরও।