Asianet News BanglaAsianet News Bangla

এসসিও সম্মেলনে যোগ দিতে উজবেকিস্তানের পথে মোদী, নজর রাশিয়া ও চিনের সঙ্গে বৈঠকে

ভারত ও রাশিয়া এমন এক সময়েও মুখোমুখি হচ্ছে, যখন ক্রেমলিন ইউক্রেনে সামরিক অভিযান শুরু করার পর মস্কো বিশেষ করে পশ্চিমের কাছ থেকে ভারী বাণিজ্য ও দ্বিপাক্ষিক নিষেধাজ্ঞার মধ্যে ভুগছে।

PM Modi departs for SCO summit in Samarkand, bilateral talks with Putin on cards  bpsb
Author
First Published Sep 15, 2022, 9:03 PM IST

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বৃহস্পতিবার সাংহাই কোঅপারেশন অর্গানাইজেশন (এসসিও) সম্মেলনে যোগ দিতে উজবেকিস্তানের সমরকন্দে রওনা হয়েছেন। বৃহস্পতিবার এর আগে, প্রধানমন্ত্রী মোদী বলেন যে তিনি 'টপিকাল, আঞ্চলিক এবং আন্তর্জাতিক' বিষয়ে আলোচনা করার জন্য উন্মুখ। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় জানিয়েছে "উজবেক চেয়ারশিপের অধীনে, বাণিজ্য, অর্থনীতি, সংস্কৃতি এবং পর্যটনের ক্ষেত্রে পারস্পরিক সহযোগিতার জন্য বেশ কয়েকটি সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হতে পারে"।

পিএমও-র প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, "সাংহাই কো-অপারেশন অর্গানাইজেশনের (এসসিও) রাষ্ট্রপ্রধান কাউন্সিলের বৈঠকে যোগ দিতে উজবেকিস্তানের প্রেসিডেন্ট শাভকাত মিরজিওয়েভের আমন্ত্রণে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী সমরখন্দ সফর করবেন। এছাড়া, শীর্ষ সম্মেলনে যোগদানকারী অন্যান্য নেতাদের সাথে দ্বিপাক্ষিক বৈঠক করবেন মোদী"।

চিনের রাষ্ট্রপতি শি জিনপিং সহ ১৫ জন বিশ্ব নেতার মধ্যে প্রধানমন্ত্রী মোদী রয়েছেন, যারা ১৫ এবং ১৬ সেপ্টেম্বর উজবেকিস্তানের সমরকন্দে শীর্ষ সম্মেলনে অংশ নেবেন। "রাশিয়ান সার এবং দ্বিপাক্ষিক খাদ্য সরবরাহের সাথে ভারতীয় বাজারের 'স্যাচুরেশন' বিষয়গুলি নিয়ে আলোচনা করার পরিকল্পনা রয়েছে," ক্রেমলিনের এক সূত্রকে উদ্ধৃত করে সংবাদ সংস্থা রয়টার্স এই তথ্য দিয়েছে। প্রধানমন্ত্রী মোদী এবং পুতিন এশিয়া-প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের পরিস্থিতি এবং রাষ্ট্রসংঘ এবং জি-২০তে দ্বিপাক্ষিক সহযোগিতা নিয়ে আলোচনা করতে প্রস্তুত।

PM Modi departs for SCO summit in Samarkand, bilateral talks with Putin on cards  bpsb

পুতিনের সঙ্গে দেখা করবেন প্রধানমন্ত্রী মোদী

শীর্ষ সম্মেলনের ফাঁকে উজবেকিস্তানে প্রধানমন্ত্রী ও রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের বৈঠক হওয়ার কথা রয়েছে। রাশিয়ার তরফে প্রেসিডেন্টের অফিস জানিয়েছে এই বৈঠক অর্থাৎ প্রধানমন্ত্রী মোদী এবং পুতিনের বৈঠক বিশেষভাবে গুরুত্বপূর্ণ, কারণ ভারত ডিসেম্বরে রাষ্ট্রসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে সভাপতিত্ব করবে এবং, ২০২৩ সালে, ভারত SCO-এর নেতৃত্ব দেবে। এরই সঙ্গে G 20-এরও সভাপতিত্ব করবে"।

একটি বিষয় মাথায় রাখা জরুরি যে ২০২২ সালের ফেব্রুয়ারিতে রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধ শুরু হওয়ার পর প্রথমবার মুখোমুখি হচ্ছে ভারত এবং রাশিয়া। এর আগে বিদেশ মন্ত্রক বলেছিল যে কিয়েভে সামরিক ব্যস্ততার মধ্যে প্রধানমন্ত্রী মোদী পুতিনকে ফোন করেছিলেন। তিনি পূর্ব ইউরোপীয় দেশটিতে অবিলম্বে হামলা বন্ধের জন্য ক্রেমলিন প্রধানকে আহ্বান জানিয়েছেন। এছাড়াও, সেই সময়ে, ইউক্রেনে অবস্থিত ২০ হাজারেরও বেশি ভারতীয় ছাত্রদের জীবন ঝুঁকির মধ্যে ছিল এবং অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ছিল তাদের নিরাপদ দেশে ফেরানো। 

ভারত ও রাশিয়া এমন এক সময়েও মুখোমুখি হচ্ছে, যখন ক্রেমলিন ইউক্রেনে সামরিক অভিযান শুরু করার পর মস্কো বিশেষ করে পশ্চিমের কাছ থেকে ভারী বাণিজ্য ও দ্বিপাক্ষিক নিষেধাজ্ঞার মধ্যে ভুগছে।

শি জিনপিংয়ের সঙ্গে দেখা করতে পারেন প্রধানমন্ত্রী মোদী

পূর্ব লাদাখে এলএসি বরাবর চিনা পিপলস লিবারেশন আর্মি (পিএলএ) এবং ভারতীয় সেনাবাহিনীর সাম্প্রতিক অবস্থান বদলের পরে প্রধানমন্ত্রী মোদী এসসিও সম্মেলনের সাইডলাইনে শি জিনপিংয়ের সাথে দেখা করতে পারেন। বিশেষজ্ঞরা বলেছেন যে সম্প্রতি গোগরা-হট স্প্রিংস থেকে উভয় পক্ষের সেনাদের সরে যাওয়া দুই রাষ্ট্রনেতার মধ্যে একের পর এক আলোচনার পথ প্রশস্ত করতে পারে।

সূত্রের খবর যে ২০২০ সালের এপ্রিল মাসের আগের স্থিতাবস্থায় ফিরে আসার জন্য অবশিষ্ট ফ্রিকশন পয়েন্টগুলি থেকে অচলাবস্থা কাটানো এবং ডি-এস্কেলেশনের দিকে ভারতের ফোকাস থাকবে।

ইরানের প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম রাইসির সঙ্গেও দ্বিপাক্ষিক বৈঠক করবেন মোদী। পিএমও জানিয়েছে "প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী উজবেকিস্তানের সমরকন্দের উদ্দেশ্যে বিমানে চড়েছেন। তিনি SCO শীর্ষ সম্মেলনে অংশ নেবেন এবং সেইসাথে বেশ কিছু বিশ্ব নেতার সাথে বৈঠক করবেন"।

Follow Us:
Download App:
  • android
  • ios