একেই বলে প্রযুক্তির কামাল। নয়াদিল্লির লোক কল্যান মার্গে প্রধানমন্ত্রীর বাসভবন থেকেই ভিডিও মাধ্যমে মঙ্গোলিয়ার রাজধানী উল্লানবাতার-এর গন্দন মঠের এক বুদ্ধমূর্তির উন্মোচন করলেন নরেন্দ্র মোদী ও মঙ্গোলিয়ার প্রেসিডেন্ট খাল্তমাগিন বাত্তুলগা। সোনালি রঙের বুদ্ধমূর্তিটির হাতে রয়েছে একটি বাটি। ধ্যানমগ্ন অবস্থায় রয়েছেন ভগবান বুদ্ধ।

পাঁচ দিনের সফরে ভারতে এসেছেন মঙ্গোলিয়ার প্রেসিডেন্ট। সফরের প্রথম কর্মসূচি হিসেবেই এদিন প্রধানমন্ত্রীর বাসভবনে আসেন খাল্তমাগিন বাত্তুলগা। উন্মোচনের আগে গন্দন মঠের তরুণ সন্ন্যাসীরা বৌদ্ধ মন্ত্র পাঠ করেন। সেই সময় পাশাপাশি করজোড়ে দাঁড়িয়েছিলেন দুই রাষ্ট্রনেতা। প্রধানমন্ত্রীর দপ্তর থেকে এই মূর্তি উন্মোচন অনুষ্ঠানকে, 'ভারত-মঙ্গোলিয়া আধ্যাত্মিক বন্ধন এবং বৌদ্ধ ঐতিহ্যের প্রতীক' বলে তুলে ধরা হয়েছে।  

এর আগে ২০১৫ সালে নরেন্দ্র মোদী মঙ্গোলিয়া সফরে গিয়েছিলেন। সেইবার এই গন্দন মঠেও গিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী। ভারতের পক্ষ থেকে বন্দুত্বের উপহার হিসেবে তিনি একটি বোধি গাছের চারা দিয়েছিলেন মঠ কর্তৃপক্ষকে। এই গন্দন মঠ মঙ্গোলিয়ার সবচেয়ে বড় বৌদ্ধ মঠ। কমিউনিস্ট মঙ্গোলিয়ায় যখন সব মঠ বন্ধ করে দেওয়া হয়েছিল, তখনও চালু ছিল এই মঠ।