দু'দিনের জন্য ভুটান সফরে গিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। সপ্তদশ লোকসভা নির্বাচনের এই প্রথম এবং এই প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পর এই নিয়ে দ্বিতীয়বার হিমালয়ের কোলের এই ছোট্ট প্রতিবেশি দেশ সফরে গেলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। 

এদিন প্রধানমন্ত্রীকে স্বাগত জানাতে পারো বিমানবন্দরে এসে উপস্থিত হয়েছিলেন ভুটানের প্রধানমন্ত্রী লোটায়ে শেরিং। সেখানে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে গার্ড অব অনার-এ সম্মানিত করা হয়। 

 

দুদিন ভুটান সফরে প্রতিবেশি দেশটির সঙ্গে শিক্ষা এবং অন্যান্য একাধিক গুরুত্বপূর্ণ ১০টি বিষয়ে মৌ স্বাক্ষরিত হবে বলে জানা গিয়েছে। এর পাশাপাশি জানা গিয়েছে যে, মঙ্গদেচুর হাইড্রো-ইলেকট্রিক পাওয়ার প্ল্যান্ট এবং থিম্ফু-তে ইসরো নির্মিত আর্থ স্টেশন-সহ আরও পাঁচটি উদ্বোধন অনুষ্ঠানেও অংশ নেবেন প্রধানমন্ত্রী। হিমালয়ের কোলে অবস্থিত এই ছোট্ট দেশটি সম্পর্কে প্রধানমন্ত্রী মন্তব্য করেছিলেন, ভারত-ভুটান সম্পর্কের ভিত নির্ভর করছে নয়া দিল্লির 'প্রতিবেশিই প্রথম' নীতির ওপর। 

 

এবারের ভুটান সফরের আগে একটি বিবৃতিতে প্রধানমন্ত্রী জানিয়েছিলেন যে, ভারত সরকারের অন্যতম স্তম্ভ এই 'প্রতিবেশিই প্রথম' নীতির ওপর ভিত্তি করেই আজ ভারত-ভুটান সম্পর্ক একটা বিশেষ উল্লেখ-এর দাবি রাখে। তিনি আরও বলেন যে, তাঁর এই ভুটান সফরের মধ্যে দিয়ে দুই দেশের বন্ধুত্ব আরও সুদৃঢ় হয়ে উঠবে।