জন্মের পরেই মা প্রত্যাখান করেছেন। একবার মাত্র চেয়ে দেখেছে নবজাতকের দিকে। তারপর আর ঘুরেই তাকায়নি। তারপর থেকেই নিভির স্থান হয়েছে যশোধা মা বা পালিত মায়ের কাছে। সেই থেকে দুর্বল সন্তানের দায়িত্ব সামলাচ্ছেন পালিতা মা। কারণ জন্মের সময় তার ওমন থি এক কেজিরও নিচে। যা সচারচর দেখা যায় না ব্যাঘ্র প্রজাতির মধ্যে। নিভির জন্ম হয়েছে নিকারাগুয়ার একটি চিড়িয়াখানায়। 


নিভি, স্প্যানিশ ভাষায় এই শব্দের অর্থ হল তুষার। বাঘের গায়ের রং সাদা হওয়ায় এই নামই দিয়েছে চিড়ায়াখানা কর্তৃপক্ষ। এক প্রাণি বিশেষজ্ঞ জানিয়েছেন সাদা বাঘ বিরল প্রজাতির বাঘ। সাদা বাঘকে জেনেটিক অ্যানোমালি হিসেবে বর্ণনা করা হয়। বনে যার অস্তিত্ব প্রায় নেই বললেই চল। বেঙ্গল টাইগারই সাদা বাঘ। কারণ তাদের বাবা মা একটি অবিচ্ছিন্ন জিন বহন করে। এগুলি অ্যাবিনোস বা আলাদা প্রজাতি ন। অরণ্যে এই জাতীয় বাঘ দেখতে না পাওয়া গেলেই চিড়িয়াখানাগুলি সাদা বাঘের প্রজনন করে। কারণ দর্শকদের আকর্ষণের অন্যতম একটি উপাদন এই পশু। কিন্তু এইজাতীয় বাঘগুলির মধ্যে জেনেটিক সমস্যা দেখা দেয় বলেও জানিয়েছেন পশু বিশেষজ্ঞরা। 

সেযাই হোক, নিকারাগুয়ার চিড়িয়াখানার নিভি হল প্রথম জন্মগ্রহণকারী সাদা বাঘ। কিন্তু জন্মের পরেই শাবকে ত্যাগ করে তার মা। তারপর থেকে সে লালিত পালিত হচ্ছে এক মানুষ মায়ের কাছে। সেই মা অত্যন্ত যত্ন নিয়ে বড় করে তুলছে তাকে। ঘড়ি ধরে প্রতি তিন ঘণ্টা অন্তর বোতলে করে দুধ খাওয়াচ্ছে। নরম বিছানা করে দিয়েছে শোয়ার জন্য। সার্কসওয়ালারা ফেলে দিয়ে গিয়েছিল নিভির মাকে। পরে তার দায়িত্ব তুলে নিয়েছিল চিড়িয়াখানা কর্তৃপক্ষ। এবার তার সন্তানকেই বড় করছে মানুষ মা।