রাশিয়ার (Russia) স্পুটনিক ভি-র (SputnikV) সাফল্যের পরে আরও একটি করোনাটিকায় সাফল্য পেল দেশটি।   ক্লিনিক্যাল ট্রায়ের পর ভেক্টর ইনস্টিটিউট ঘোষণা করেছে তাদের তৈরি করোনাভাইরাসের টিকা ইপিভ্যাককরোনা (EpiVacCorona) করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে ১০০ শতাংশ কার্যকর। স্থানীয় বার্তা সংস্থা টিএএসএস-র উদ্ধৃতি দিয়ে একথা জানিয়েছে রয়টার্স। রশিয়া নভেম্বর  মাসেই সাইবেরিয়ার ভিক্টর ইনস্টিটিউট দ্বারা বিকাশ করা ইপিভ্যাককরোনার ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল শুরু করেছিল। 

রাশিয়ান প্রধানমন্ত্রী তাতিয়ানা গোলিকোভা সোমবার জানিয়েছিলেন ২০২১ সালের ফেব্রুয়ারি থেকে  দ্বিতীয় কোভিড ভ্যাক্সিন ব্যাপক হারে উৎপাদন শুরু করবে। তিনি আরও জানিয়েছিলেন ফেব্রুয়ারি থেকেই ভেক্টরের তৈরি করোনা টিকা উৎপাদন করা হবে। গত বছর ২৪ জুলাই, ভেক্টর স্টেট রিসার্চ সেন্টার অব ভাইরোলজি ও বায়োটেকনোলজি তাদের তৈরি ভ্যাক্সিনের ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালের জন্য অনুমোদন পেয়েছিল। গত ৩০ সেপ্টম্বর শেষ হয় ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল। তারপর ফলাফল ব্লিশেষণ করে জানান হয়েছে এটি করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে ১০০ শতাংশ কার্যকর। 

স্থানীয় প্রশাসন জানিয়েছে, প্রথম দফায় ১৪জনকে টিকা দেওয়া হয়েছিল। দ্বিতীয় দফায় ৪৩জন টিকা পেয়েছিলেন। স্বেচ্ছাসেবকরা সকলেই সুস্থ রয়েছেন বলেও জানান হয়েছে।  আগে মস্কো জানিয়েছিল করোনাভফাইরাসে সংক্রমণ  রুখতে অন্তর্তীকালীন ফলাফল অনুসারে তাদের তৈরি ভ্যাকসিন স্পুটনিক ভি   ৯২ শতাংশ সফল। আর নতুন এই টিকাটি একশো শতাংশ সফল বলেই দাবি করেছে সংস্থা।  করোনাভাইরাসের প্রথম টিকা তৈরির কৃতিত্বও এই দেশটি পেতে পারে। কারণ অনেক দিন আগেই রাশিয়ায় তৈরি হয়েছিল স্পুটনিক ভি। যা ইতিমধ্যেই রাশিয়ান জনগণকে দেওয়া হচ্ছে। রাশিয়ান প্রশাসন দানিয়েছে স্পুটনিক ভি নিয়ে এখনও পর্যন্ত তেমন বিরুপ প্রতিক্রিয়া দেখা যায়নি।