কাউন্টডাউন শুরু হয়ে গেছে। আগামী ২০ জানুয়ারি মার্কিন উপরাষ্ট্রপতি হিসেবে শপথ গ্রহণ করবেন কমলা হ্যারিস। তিনি হবেন প্রথম ভারতীয় বংশোদ্ভূত ও মহিলা মার্কিন উপরাষ্ট্রপতি। শপথ গ্রহণের আগেই মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রথম সারির একটি সাংবাদ চ্যানেলে দেওয়া সাক্ষাৎকালে হ্যারিস সম্পর্কে বেশ কিছু অজানা তথ্য ভাগ করেনিয়েছিলেন দর্শকদের সঙ্গে। সেই সঙ্গে তাঁদের প্রথম ডেটিং-এর কথাও জানিয়েছেন ডাগ এমহফ। 

এমহফ জানিয়েছেন তাঁদের দাম্পত্যের মেয়াদ দীর্ঘ ৬ বছর। আর এই সময় তাঁরা একে অপরের কাছ থেকে অনেক কিছুই শিখেছেন। ২০১৩ সালে তাঁরা প্রথম একে অপরের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্কে আবদ্ধ হওয়ার ঘটনাও জানিয়েছেন। একই সঙ্গে তিনি জানিয়েছেন, তাঁরা এখনও খুব ভালো বন্ধু। তাঁরা বলেছিলেন তাঁদের এক বন্ধু তাঁদের জন্য ব্লাইন্ড ডেটিং-এর ব্যবস্থা করেছিল। আর তখন কমল্যা হ্যারিস তাঁকে গুগুল সার্চ করতে বারন করেছিলেন। এমহফ জানিয়েছিলেন তিনি হ্যারিসের কথা মেনে নিয়েছিলেন। তারপরই তাঁদের আলাপ হয়। এমহফ জানিয়েছিলেন তিনি হ্যারিসের নাম শুনেছিলেন। কারণ সেই সময় হ্যারিস ছিলেন ক্যালিফোর্নিয়ার অ্যাটর্নি জেনারেল। 

 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 

A post shared by Doug Emhoff (@douglasemhoff)

অন্যদিকে কমলা হ্যারিস জানিয়েছেন আলাপের পর থেকেই তাঁদের সম্পর্ক তৈরি হয়েছিল। এখন তা ইতিহাস। তিনি তাঁর স্বামীকে সবথেকে  বেশি ভালোবাসের। তারপরই তাঁর প্রেম হল চকস। একাধিকবার তাঁকে এই চকস পরা অবস্থায় দেখা গিয়েছিল। কমল্যা হ্যারিস বলেছেন তিনি চকসের সঙ্গেই বড় হয়েছেন। আর তিনি তাঁদেরই ভালোবাসেন যাঁরা স্বাচ্ছন্দ্যদেয়। হ্যারিসের স্বামী বলেছেন তাঁদের বাড়িতে বেশ কয়েকটি চকস রয়েছে। কমলা হ্যারিস জানিয়েছেন তিনি যখন দেখা করতে গিয়েছিল তাঁর হবু স্বামীর সঙ্গে তখনও তিনি জিনস আর চকস পরিহত অবস্থাতেই গিয়েছিলে। 

আর মাত্র কয়েক দিন পরেই কমলা হ্যারিস উপরাষ্ট্রপতি হিসেবে ইতিহাস তৈরি করবেন। আর সেই সময় ইতিহাসের তৈরি করবেন তাঁর স্বামী ডগ এফহফও। তাঁকে সেকেন্ড জেনটেলম্যান বলা যায় কিনা তা জানতে চাইলে হ্যারিস বলেন তিনি তাঁর স্বামীকে হানি বলেই ডাকবেন। ২০১৪ সালের ২২ অগাস্ট তাঁদের বিয়ে হয়। দুই সন্তান রয়েছে তাঁদের।