এ যেন অনেকটা যমে মানুষে টানাটানির মত অবস্থা। ১২তাল থেকে পড়়ে গিয়ে রক্ষা পেলে মাত্র ২ বছরের এক ক্ষুদে শিশুর। বহুতল থেকে সেই শিশুর পড়ে যাওয়ার দৃশ্যই ভাইরাল নেটদুনিয়া। সঙ্গে নেটদুনিয়ায় হিরো হলে গেল এক ডেলিভারি বয়। কারণ ডেলিভারি বয়ের জন্যই প্রাণে রক্ষা পেয়েছে ২ বছের শিশুটি। 

ভিয়েতনামের হ্যানয়ের ঘটনা। ছোট্ট মেয়েটিকে বারান্দায় দেখতে পেয়ে সঙ্গে সঙ্গে প্রতিবেশী এক মহিলা চিৎকার শুরু করে দেন। তাতেই দাঁড়িয়ে পড়েছিলেন ডেলিভারি বয়। যদিও তিনি জানিয়েছেন প্রথমে তিনি ভেবেছিলেন সেখানে শিশুদের চেঁচামেচি হচ্ছে। কিন্তু কিছুক্ষণ পরেই তিনি বুঝতে পারেন একটি বড় বিপদ ঘটতে চলেছে। 


৩১ বছরের ডেলিভাবি বয় ন্যুগেইন অনগোক ম্যানহ প্রথমে শিশুটিটেকে একটি বারান্দা থেকে ঝুলতে দেখতে পান। তাপরকই তিনি গাড়ি থেকে নেমে একটি বিল্ডিংএর পাঁচিলে ওঠে। একটি ২ মিটার টাইলের ছাদে দাঁড়িছেন। তখনই মেয়েটি পড়ে যায়। ভাগ্যক্রমে তিনি ছোট্ট মেয়েটিকে লুফে নেন।  এনগোক জানিয়েছেন তাঁর মূল উদ্দেশ্য ছিল শিশুটিকে মাটিতে পড়া থেকে বিরত করা। আর তাতে তিনি সফল হয়েছেন। কুন্তু অনেকটা উঁচু থেকে পড়ে যাওয়ায় মেয়েটি কোমরে চোট পেয়েছে বলেও জানিয়েছ হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। তবে ভয়ের কিছু নেই বলেও জানিয়েছে তাঁরা। 

এনগোক জানিয়েছেন তিনি ভিয়েতনামের বাসিন্দা। তিনি কিছুতেই বিশ্বাস করতে পারছে না যে তিনি ওইরকম অবস্থা থেকে মেয়েটিকে বাঁচাতে পেরেছেন। পুরো ঘটনাটি অলৌকিক বলেও বর্ণনা করেছেন তিনি। তবে সোশ্যাল মিডিয়া সুপার হিরোর আসনে বসিয়েছে ডেলিভাবি বয়কে।