যাত্রা শুরু করল চিনের নতুন বিমানবন্দর দাক্সিং। বৃহস্পতিবার ৭০ বছর পূর্ণ হচ্ছে পিপলস রিপাবলিক অব চিনের। তার আগের দিনই প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং বেজিংয়ে এই বিমানবন্দরের উদ্বোধন করেন। ৭ লক্ষ বর্গমিটারের এই নয়া বিমানবন্দরটি প্রায় ৯৮টি প্রমাণ মাপের ফুটবল মাঠ ঢুকে যেতে পারে। নির্মাণ কাজে ব্যয় হয়েছে ১১ বিলিয়ন ডলার।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের আটলান্টার বিমানবন্দরের পর, বেজিং ক্যাপিটাল ইন্টারন্যাশনাল বিমানবন্দরই বর্তমানে বিশ্বের দ্বিতীয় ব্যস্ততম বিমানবন্দর। প্রতিদিন এই বিমানবন্দর ব্যবহার করেন প্রায় ১০ কোটি মানুষ। তার বার কাতেই আরও একটি বিমানবন্দর তৈরির দরকার পড়েছিল।

স্টার ফিশের নতো দেখতে বিমানবন্দরটির নকশা করেছেন ইরাকি বংশোদ্ভূত স্থপতি জাহা হাদিদ। নতুন এই বিমানবন্দরের টার্মিনালই এই মুহূর্তে বিশ্বের সবচেয়ে বড় টার্মিনাল হল বলে দাবি চিনের ২০২৫ সালে এই বিমান বন্দর প্রতিদিন গড়ে ১৭ কোটি মানুষ ব্যবহার করবেন হলে আসা করা হচ্ছে।

প্রথম দিন থেকেই দাক্সিং বিমানবন্দর দিয়ে অভ্যন্তরীণ সাতটি রুটে বিমান চলাচল শুরু হয়েছে। এছাড়া ব্রিটিশ এয়ারওয়েজ, ক্যাথে প্যাসিফিকের মতো আন্তর্জাতিক বিমান সংস্থাগুলি ইতিমধ্যেই দাক্সিং থেকে তাদের বিভিন্ন রুটের  পরিকল্পনা প্রকাশ করেছে।