মুম্বইয়ের ওয়াঙ্খেড়ে স্টেডিয়ামে রবিবার সন্ধ্যায় মহা গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচ। আইপিএল ২০১৯-এর প্লেঅফের ছবিটা সম্পূর্ণ হবে এবারের লিগ পর্বের একেবারে শেষ ম্যাচেই। হিসেবটা হল প্লেঅফ খেলার যোগ্যতা অর্জন করে নিতে গেলে জিততেই হবে কেকেআর-কে। আর মুম্বই ইন্ডিয়ান্স জিতলে তারা প্রথম দুই দলের মধ্যে থেকে ফাইনালে ওঠার বাড়তি সুবিধা পাবে। কাজেই দুই দলই যে জিততে মরিয়া থাকবে তাতে সন্দেহ নেই।

মুশকিল হল এই মহা-গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচের আগে একদমই সুস্থ পরিবেশনেই কেকেআর ড্রেসিংরুমে। কেকেআর দল যেমনই খেলুক বরাবরই ড্রেসিংরুম থেকেছে সুখি পরিবারের মতো। এইবার প্রথমদিকে বেশ ভালো অবস্থায় ছিল কেকেআর। কিন্তু তারপর পর পর ছয় ম্যাচে পরাজিত হয়ে প্লেঅফে ওঠার অঙ্কটা জটিল করে ফেলেছে। আর তারপরেই ফাটল ধরেছে ড্রেসিংরুমের সুখি-সুখি ভাবে।

টুর্নামেন্টের প্রথম থেকেই মাঠের ভিতরে ঝড় তুলেছেন আন্দ্রে রাসেল। কিন্তু, টুর্নামেন্টের শেষ পর্বে এসে এই ক্যারিবিয়ান অলরাউন্ডার দীনেশ কার্তিকের অধিনায়কত্ব নিয়ে প্রশ্ন তুলে ঝড় তুলে দিয়েছেন মাঠের বাইরেও। তারপর আবার কার্তিকও তাঁর 'পিছনে কী চলছে' সব জানেন বলে মন্তব্য করে ড্রেসিংরুমের ছবিটা পরিষ্কার করে দিয়েছেন। শেষ ম্যাচে মাঠের মধ্যেই বোলারদের উপর উষ্মা প্রকাশ করে অবস্থা আরও ঘোরালো করে তুলেছেন কেকেআর অধিনায়ক। কাজেই জিততেই হবে, এমন ম্য়াচের আগে কেকেআর ড্রেসিংরুমের পরিবেশ মোটেই ভালো অবস্থায় নেই।

তবে এই অবিশ্বাসের ধূসর ড্রেসিংরুম নিয়েও কিন্তু আশা দেখতেই পারেন কেকেআর সমর্থকরা। কারণ, বাইরের অশান্তির ছাপ কিন্তু অন্তত মোহালিতে কিংস ইলেভেন পঞ্জাবের বিরুদ্ধে গত ম্যাচে দেখা যায়নি। ওপেনে ফিরতেই গত চার ম্যাচে তিনটি অর্ধশতরান করেছেন শুভমান গিল। মোহালিতে করেন ম্য়াচ জেতানো ৪৯ বলে ৬৫। অপর ওপেনার ক্রিস লিনও ভালো ফর্মে আছেন। কিংস ইলেভেনের বিরুদ্ধে তাঁর ব্।যাট থেকে এসেছে বিস্ফোরক ২২ বলে ৪৬। আর আন্দ্রে রাসেল যে এইবারের আইপিএল-এর 'মোস্ট ভ্যালুয়েবল ক্রিকেটার' হতে চলেছেন তা এখনই বলে দেওয়া যায়।

ক্যারিবিয়ান অলরাউন্ডার এবারের আইপিএল-এ এখনও পর্যন্ত ১৩ ম্য়াচে ৫১০ রান করেছেন। ৪টি অর্ধশতরৈান করেছেন, স্ট্রাইক রেট ২০৫.৬৫। সপ্তাহ খানেকস আগে এই মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের বিরুদ্ধেই ৪০ বলে অপরাজিত ৮০ রানের মারকাটারি ইনিংস খেলেছিলেন। তর্ক-বিতর্কের পর আপাতত তিনি কেকেআর-এর হয়ে নিয়মিত চার নম্বরে ব্যাট করছেন। কাজেই তাঁকে নিয়ে আশায় বুক বাঁধাই যায়।

তবে মুম্বই-ও কিন্তু ছেড়ে কথা বলবে না। এমনিতেই ইতিহাস তাদের পক্ষে রয়েছে। আইপিএল-এ সবচেয়ে বেশি সফল তারা কেকেআর-এর বিরুদ্ধেই দুই দলের মধ্য়ে হওয়া ২৪টি ম্যাচের মধ্য়ে ১৮টিতেই জয় পেয়েছেন রোহিত শর্মারা। এবারের লিগে প্রথম সাক্ষাতে অবশ্য ইডেন গার্ডেন্সে জয় পেয়েছিলেন কার্তিক-রাসেলরা।

ইতিহাসের সমর্থনের পাশাপাশি ঘরের মাঠে জিতে প্রথম দুই দলের মধ্য়ে থাকার সুবিধা নিতে সব রকমভাবেই ঝাঁপাবে মুম্বইয়ের দলটি। কলকাতার দলে একজন আন্দ্রে রাসেল থাকলে তাদের দলেও আছেন হার্দিক পাণ্ডিয়া। বিশ্বকাপের আইপিএল-এ তাঁকে দুর্দান্ত ফর্মে দেখা যাচ্ছে। ১৩ ম্যাচে তিনি ১৯৭.৪৫ স্ট্রাইকরেটে ৩৭৩ রান করেছেন। সঙ্গে ১২টি উইকেটও শিকার করেছেন এই ভারতীয় অলরাউন্ডার।

কাজেই আইপিএল ২০১৯-এর লিগ পর্বের শেষ ম্যাচেও একটা জমজমাট ক্রিকেট প্রতিদ্বন্দ্বিতা দেখার প্রত্যাশা করা হচ্ছে।