ওপেনিং ম্য়াচেই নীতিশ রানা ও রাহুল ত্রিপাঠীর অনবদ্য ব্য়াটিং। দুই তরুণ তারকা ঝোড়ো অর্ধশতরানের সুবাদে সানরাইজার্স হায়দরাবাদকে ১৮৮ রানের টার্গেট দিল কেকেআর। রানা-ত্রিপাঠী পার্টনারশিপ চলাকালীন একসময় মনে হয়েছিল ২০০-র গন্ডী টপকে যাবে নাইটরা। কিন্তু রানা ও ত্রিপাঠী আউট হওয়ার পরই পরপর উইকেট হারায় কেকেআর। শেষ ৫ ওভারে ম্য়াচে ফিরে মাত্র ৪২ রান দেয়। শেষে দীনেশ কার্তিকের ছোট কিন্তু কার্যকরী ইনিংস খেলেন।  হায়দরাবাদের হয়ে ২টি করে উইকেট পান বনি ও রাশিদ, একটি করে উইকেট পান ভুবি ও নটরাজন। 

এদিন টসে জিতে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয় সানরাইজার্স অধিনায়ক ডেভিড ওয়ার্নার। দুরন্ত শুরু করেন কেকেআরের দুই ওপেনার নীতিশ রানা ও শুভমান গিল। প্রথম উইকেটে ৫৩ রানের পার্টনারশিপব করেন দুজন। বেশ কিছু আক্রমণাত্মক শট খেলেন দুজন। যদিও দলের ৫৩ রানের মাথায় আউট হন শুভমান গিল। রাশিদ খানের বলে বোল্ড হন তিনি। এরপর কেকেআরের ইনিংসের রাশ ধরেন রাহুল ত্রিপাঠী ও নীতিশ রানা। দ্বিতীয় উইকেটে ৯৩ রানের পার্ট শিপ করেন তারা। অর্ধশতরান করেন রানা ও ত্রিপাঠী। একাধিক চার, ছক্কা হাকান তারা। শেষে ২৯ বলে ৫৩ রান করে আউট হন ত্রিপাঠী।

পার্টনারশিপ ভাঙার পরই একের পর উইকেটে হারিয়ে শেষের দিকে রানের গড় কমে যায় কেকেআরের। ব্য়াট হাতে ব্যর্থ হন আন্দ্রে রাসেল, ইয়ন মর্গ্যানরা। রাসেল করেন ৫ রান রাশিদ খানের বলে আউট হন তিনি। এরপর মহম্মদ নবির পরপর দুই বলে আউট হন রানা ও মর্গ্যান। ৫৬ বলে ৮০ রান করেন রানা। ২ রান করে আউট হন মর্গ্যান। শেষে দীনেশ কার্তিক কিছুটা আক্রমণাত্বক ইনিংস খেলেন। ৯ বলে ২২ রান করেন তিনি। শেষ বলে আউট হন শাকিব আল হাসান। শেষে ২০ ওভারে ৬ উইকেট হারিয়ে ১৮৭ রান করল কেকেআর। সানরাইজার্সের টার্গেট  ১৮৮ রান।