আজ আইপিএলে ডবল হেডার। প্রথম গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে মুখোমুখি হতে চলেছে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোর বনাম রাজস্থান রয়্যালস। দুই দলই তাদের শেষ ম্য়াচ হেরে দুবাই ইন্টারন্যাশানাল স্টেডিয়ামে একে অপরের মুখোমুখি হতে দুই দল। প্রথম লেগে নিজেদের সাতটি ম্যাচের মধ্যে পাঁচটি জিতে দারুণ ছন্দে ছিল বিরাট কোহলির দল। কিন্তু শেষে ম্যাচে লিগ টেবিলের একেবারে নীচে থাকা কিংস ইলেভেন পঞ্জাবের কাছে হেরে ধাক্কা খেয়েছে আরসিবি। তাই শনিবার দুবাইতে রাজস্থান রয়্যালসের বিরুদ্ধে জয়ে ফিরতে মরিয়া বিরাট কোহলি, এবি ডিভিলিয়ার্সরা। পঞ্জাব ম্যাচকে একটা বাজে দিন ধরে নিয়েই প্রতিযোগিতায় সামনের দিকে তাকাতে চাইছে ব্যাঙ্গালোর। দলও যে একেবারে ছন্দে নেই তেমনটা নয়। ব্য়াটিং লাইনআপে রানের মধ্যে রয়েছেন দেবদূত পাড়িকল, বিরাট কোহলি, এবি ডিভিলিয়ার্সরা। শুধু মাত্র অ্যারন ফিঞ্চের ধারাবাহিকতার অভাব নিয়ে একটু চিন্তায় রয়েছে আরসিবি টিম ম্যানেজমেন্ট। অললরাউন্ডারের ভূমিকাতেও ভাল পারফর্ম করছেন শিবম দুবে, ওয়াশিংটন সুন্দর, ক্রিস মরিসরা। বোলিং লাইনআপেও ছন্দে রয়েছেন যুজবেন্দ্র চাহল, নবদীপ সাইনি, ইশুরু উদানারা। তাই ফের একবার জয়ের সরণিতে ফেরার বিষয়ে আত্মবিশ্বাসী কোহলি ব্রিগেড।

অপরদিকে,সানরাইজার্সের বিরুদ্ধে জয়ে ফিরলেও, শেষ ম্য়াচে দিল্লি ক্যাপিটালসের বিরুদ্ধে ফের হারের মুখ দেখতে হয় স্টিভ স্মিথের দলকে। প্রতিযোগিতায় টিকে থাকতে হলে আরসিবির বিরুদ্ধে ম্যাচ কার্যত ডু অর ডাই রাজস্থান রয়্যালসের কাছে। কিন্তু দলের ব্যাটিং-বোলিং লাইনআপে একাধিক সমস্যায় জর্জরিত রয়্যালসরা। ব্যাটিং লাইনআপে রানের মধ্যে নেই জস বাটলার, স্টিভ স্মিথ, সঞ্জু স্যামসনরা। গত ম্যাচে বেন স্টোকস রান পাওয়ায় কিছুটি স্বস্তিতে রয়্যালস টিং ম্যানেজমেন্ট। রবিন উথাপ্পারও ধারাবাহিকতার অভাব রয়েছে। অলরাউন্ডার হিসেবে ছন্দে রয়েছেন রাহুল তেওয়াটিয়া। বোলিং লাইনআপে একমাত্র দুরন্ত ফর্মে রয়েছেন জোফ্রা আর্চার। উইকেট নেওয়ার পাশাপাশি প্রয়োজনে ব্যাট হাতেও কার্যকরী ভূমিকা পালন করছেন তিনি। কিন্তু শ্রেয়স গোপাল, জয়দেব উনাদকাট, কার্তক ত্যাগিরা এখনও তাদের সেরাটা উজার করে দিতে পারেননি। কিন্তু পরিস্থিতি যাই আরসিবিকে হারাতে মরিয়া রাজস্থান রয়্যাললসরা। 

পিচ ও ওয়েদার রিপোর্ট-
দুবাইয়ের পিচে ব্যাটসম্যান ও বোলার উভয়ই সাহায্য পাবে। বিশেষ করে দ্বিতীয় ইনিংসে পিচ যখন একটু স্লো হবে তখন কার্যকরী ভূমিকা পালন করতে পারে স্পিনাররা। তাই টস জিতে প্রথমে ব্যাট করার সিদ্ধান্তই সঠিক বলে মনে করা হচ্ছে। এছাড়া আজ দুবাইয়ের তাপমাত্রা থাকবে ৩৫ ডিগ্রির আশেপাশে। বজায় থাকবে আদ্রতা জনিত অস্বস্তি। 

ম্যাচ প্রেডিকশন-
সাম্প্রতিক ফর্মের বিচারে রাজস্থান রয়্যালের থেকে অনেকটা এগিয়ে রয়েছে রয়্য়াল চ্য়ালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোর দল। তবে দুই দলেই রয়েছে একাধিক তারকা প্লেয়ার। তাই ক্রিকেট বিশেষজ্ঞদের মতে দুবাইতে যেই দল প্রথমে ব্যাট করবে তাদের জয়ের সম্ভাবনা অনেক বেশি।