আজ আইপিএলে মুখোমুখি রাজস্থান রয়্যালস ও সানরাইজার্স হায়দরাবাদ। দুবাই ইন্টার ন্যাশানান স্টেডিয়ামে হতে চলেছে এই ম্যাচ। ৯ ম্যাচে ৬ পয়েন্ট নিয়ে লিগ টেবিলের সপ্তম স্থানে রয়েছে অধিনায়রক ডেভিড ওয়ার্নারের সানরাইজার্স হায়দরাবাদ। অপরদিকে ১০ ম্যাচে ৮ পয়েন্ট নিয়ে লিগ টেবিলের ষষ্ঠ স্থানে রয়েছে অধিনায়ক স্টিভ স্মিথের রাজস্থান রয়্যালস। ফলে লিগ টেবিললের উপরে উঠতে হলে ও একইসঙ্গে শেষ চারের আশা জিইয়ে রাখতে হলে এই ম্যাচ থেকে জয় আবশ্য দুই দলেরই।

আইপিএল লিগ তালিকা বর্তমানে যেই পরিস্থিতিতে রয়েছে তাতে চেন্নাই সুপার কিংস বাদে সব দলেরই অঙ্কের বিচারে শেষ চারে যাওয়ার সুযোগ রয়েছে। তবে মুম্বই, দিল্লি ও ব্যাঙ্গালোর ছাড়া সব দলই ভুগছে ধারাবাহিকতার অভাবে। সানরাইজার্স দলেও রয়েছে একই সমস্যা। জনি বেয়ারস্টো ও কেন উইলিয়ামসন ফর্মে থাকলেও, বড় রান করতে পারছেন না। দলে ম্যাচ ফিনিশারের অভাব থাকায় কেকেআরের বিরুদ্ধে নীচের দিকে এসে ব্যাট করতে হয়েছিল ওয়ার্নারকে। এছাড়া ধারাবাহিকতার অভাব রয়েছে মনীশ পান্ডে, প্রিয়ম গর্গ, বিজয় শংকরদের মধ্যে। বোলিং লাইনআপে একমাত্র দুরন্ত ফর্মে রয়েছে রাশিদ খান। টি নটরাজন কিছুটা ভাল বল করলেও, সন্দীপ শর্মা ও বাসিল থম্পিদের মধ্যে ধারাবাহিকতার অভাব রয়েছে। কিন্তু পরিস্থিতি যাই থাক আজকের ম্যাত হারলে শেষ চারের আশা একেবারেই শেষে হয়ে যাবে সানরাইজার্সের। তাই ম্যাচ জিততে মরিয়া ডেভিড ওয়ার্নারের দল।

অপরদিকে, তারাকায় ঠাসা দল হলেও, ধারাবাহিকতার অভাবের কারণেই লিগ টেবিলের নীচের দিকে রয়েছে রাজস্থান রয়্য়ালস। শেষে চারের ওঠার আশা একেবারে শেষ না হলেও, প্রতি ম্যাচ কার্যত ডু অর ডাই স্টিভ স্মিথের দলের কাছে। যদিও শেষ ম্যাচে চেন্নাইকে হারিয়ে কিছুটা আত্মবিশ্বাস ফিরে পেয়েছে রাজস্থান রয়্যালস। শেষ ম্যাচে জস বাটলার ও স্টিভ স্মিথের ফর্ম স্বস্তি দিয়েছে দলকে। তবে এখনও রানের মধ্যে নেই বেন স্টোকস, সঞ্জু স্যামসন, রবিন উথাপ্পারা। অলরাউন্ডার হিসেবে নিজের ভূমিকা পালন করছেন রাহুল তেওয়াটিয়া। বোলিং লাইনআপে জোফ্রা আর্চার দুরন্ত ছন্দে আগে থেকেই ছিলেন, গত ম্যাচে ভাল বোলিং করেছেন কার্তিক ত্যাগি, শ্রেয়স গোপাল, রাহুল তেওয়াটিয়ারা। ফলে আজকের ম্যাচ জিতে শেষ চারের দিকে আরও এক পা বাড়ানোর বিষয়ে আত্মবিশ্বাসী রাজস্থান রয়্যালস দল।

পিচ ও ওয়েদার রিপোর্ট-
দুবাইয়ের পিচ যত ম্যাচ এগোচ্ছে ততবেশি ব্যাটিং সহায়ক হয়ে উঠছে। তবে মাঠ বড় হওয়ার এখানে স্পিনাররাও কিছুটা সুবিধা পেতে পারে। নতুন বলে কিছুটা সাহায্য পাবেন পেস বোলাররা। তবে ব্য়াটে বল সঠিক গতিতে আসায় রান তাড়া করার ক্ষেত্রের খব বেশি সমস্যা হবে না। দুবাইয়ের আজকের তাপমাত্রা থাকবে ৩০ ডিগ্রির আশেপাশে। বজায় থাকবে আদ্রতাজনিত অস্বস্তি। 

ম্যাচ প্রেডিকশন-
পয়েন্টের বিচারে রাজস্থান এক ম্যাচ বেশি জিতলেও, দলগত সামঞ্জস্যের বিচারে স্টিভ স্মিথের দলের থেকে কিছুটা এগিয়ে ডেভিড ওয়ার্নারের দল। তাই ক্রিকেট বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন আজকের ম্যাচ জিততে চলেছে সানরাইজার্স হায়দরাবাদ।